অনুশীলন বন্ধ করলো উপজেলা কাপের ফাইনালিস্ট বিশ্বনাথ

নিজস্ব প্রতিবেদক: গত ৫ নভেম্বর আন্ত:উপজেলা জেলা প্রশাসক কাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টের দ্বিতীয় সেমিফাইনাল সম্পন্ন হয়। টুর্ণামেন্টটির আয়োজক সিলেট জেলা ক্রীড়া সংস্থার দেওয়া ফিক্সার অনুযায়ী টুর্ণামেন্টটির ফাইনাল হয়ে যাওয়ার কথা ৭ নভেম্বর।

কিন্তুু এখনো ফাইনাল ম্যাচ আয়োজনের খবর নেই। সিলেট জেলা ক্রীড়া সংস্থা কবে টুর্ণামেন্টটির ফাইনাল আয়োজন করবে তা কেউ জানে না। ফলে ফাইনাল নিয়ে অনিশ্চয়তায় থাকা সেমিফাইনাল খেলার পর থেকে ফাইনালিস্ট বিশ্বনাথ উপজেলা ফুটবল দল নিজেদের অনুশীলন বন্ধ করে দিয়েছে।

এমনিতেই দলটি রয়েছে কোচ সমস্যা। স্থায়ি কোন কোচ নেই দলটির। গোলাপগঞ্জের কোচ নুরী জাহান রাহেল’র তত্বাবধানে অনুশীলন করে দলটি ফাইনাল পর্যন্ত এসেছে।

কিন্তুু এরপর থেকেই অনুশীলন বন্ধ করে দিতে হয়েছে দলটিকে। ফাইনাল নিয়ে শঙ্কা থাকায় এমন সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে দলেরট ম্যানেজম্যান্টকে।

এমনিতেই আর্থিক সংকটে ভোগে উপজেলা ক্রীড়া সংস্থা গুলো। তার উপর যদি অনির্দিষ্ট কাল যাবত অনুশীলন করতে থাকে তাহলে খরচের বহর কেবল লম্বাই হতে থাকে।

দলটির স্থায়ী কোন কোচ না থাকায় কথা বলা যায়নি। তবে দলটির অধিনায়ক জুয়েল জানালেন, হয়তোন আগামি কয়েক দিনের মধ্যে অনুশীলন করবে। তিনি জানান, ফাইনাল কবে হবে তা কেউ জানি না। যার কারণে সেমিফাইনালের পর থেকেই আমাদের অনুশীলন বন্ধ রয়েছে।

গত ৪ নভেম্বর সেমিফাইনালে সদর উপজেলা ফুটবল দলকে হারিয়ে উপজেলা কাপের ফাইনালের টিকেট কাটে বিশ্বনাথ উপজেলা ফুটবল দল।

আর্থিক অনটন আর টুর্ণামেন্টের ফাইনাল নিয়ে দীর্ঘ বিলম্বের কারণে বর্তমানে দলটির প্রেকটিস বন্ধই রয়েছে।

আয়োজকদের ফাইনাল আয়োজন বিলম্ব হওয়াতে দলটির টিম স্পিরিড ভেঙে যাচ্ছে।  সেমিফাইনালের পর থেকে উপজেলার কাপের ফাইনাল নিয়ে দেখা দিয়েছে অনিশ্চয়তা। যে অনিশ্চয়তায় ক্ষতিগ্রস্থই হচ্ছে ফাইনালিস্ট দলটি।

গ্রুপ পর্বে বিশ্বনাথ গোয়াইনঘাট উপজেলাকে, কোয়ার্টার ফাইনালে জৈন্তাপুর উপজেলা দলকে, সেমিফাইনালে সিলেট সদরকে হারিয়ে ফাইনাল নিশ্চিত করে।

এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/০০