অনেক রোমাঞ্চের ডালি সাজানো অতিমারির শ্রান্তিতে কাবু

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ করোনাভাইরাসে জর্জরিত একটি বছর ২০২০। পুরো বছরটা কেটেছে অজানা ভাইরাসের আতঙ্কে। প্রাণঘাতী এ ভাইরাসের সংক্রমণে স্থবির পুরো বিশ্ব। ক্রিকেটার, ভক্ত-সমর্থকদের যে বছরটা দু-হাত ভরে দেওয়ার কথা ছিল, সেটাই শেষ পর্যন্ত কেড়ে নিল অনেক কিছু। পৃথিবী জুড়ে জেঁকে বসা মহামারী কেড়ে নিল লাখো মানুষের প্রাণ, বিপর্যস্ত হলো বিশ্ব অর্থনীতি-যার কড়াঘাত পড়ল ক্রীড়াঙ্গনেও। একের পর এক স্থগিত হতে থাকল টুর্নামেন্ট, দ্বিপাক্ষিক সিরিজ, বিশ্বকাপের মত আসর। কোণঠাসা অবস্থা থেকে ঘুরে দাঁড়াতে ‘জৈব-সুরক্ষা বলয়’ নামের ‘বন্দিশালা’ তৈরি করে দর্শকভরা স্টেডিয়ামকে দূরে ঠেলে অচেনা রূপে শূন্য গ্যালারিতে মাঠে ফিরল ক্রিকেট। গোটা বছরজুড়ে ছিল মাঠ ও মাঠের বাইরে আনন্দ–বেদনার কাব্য। দেখে নেওয়া যাক কেমন ছিল ২০২০’র ক্রিকেটাঙ্গন

বাংলাদেশের ক্রিকেট

বছরের শুরুতে পাকিস্তান সফর করে বাংলাদেশ। ৩ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে হোয়াইটওয়াশের পর প্রথম টেস্টেও ৪৪ রানে সফরকারীদের হারায় স্বাগতিক পাকিস্তান। তৃতীয় দফায় আর যাওয়া হয়নি করোনা মহামারির কারণে। স্থগিত হয়েছে ১টি টেস্ট ও ১টি ওয়ানডে ম্যাচ।

এরপর বাংলাদেশ সফরে আসে জিম্বাবুয়ে। এফটিপিতে ১ টেস্টের সঙ্গে ৫ টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ উল্লেখ থাকলেও সেটির পরিবর্তে হয় ১ টেস্ট, ২ টি-টোয়েন্টি ও ৩ ওয়ানডে। সেই সিরিজের শেষ ওয়ানডের আগে আকস্মিকভাবে দেশের সফলতম অধিনায়ক মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা অধিনায়কত্ব ছাড়ার ঘোষণা দেন। ইতি ঘটে ২০১৪ থেকে শুরু হওয়া যাত্রার। টানা দুই বিশ্বকাপে বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দেওয়া একমাত্র অধিনায়কই মাশরাফী।

জিম্বাবুয়ে সিরিজের আগে দেশের ক্রিকেট ইতিহাসে অন্যতম সেরা সাফল্য বয়ে আনে যুব দল। দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে যুব বিশ্বকাপের শিরোপা জেতে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল। ফাইনালে হারায় ভারতকে। এরপর আর কোনো আন্তর্জাতিক ম্যাচে খেলা হয়নি জাতীয় দল বা অনূর্ধ্ব-১৯ দলের। অথচ বিশ্বজয়ীদের নিয়ে নতুন পরিকল্পনা করেছিল বিসিবি। করোনায় বাতিল হয় এই তরুণদের কয়েকটি বিদেশ সফরও। ঘরোয়া ক্রিকেটের আসরও বন্ধ হয়ে যায়। ঢাকা প্রিমিয়ার লিগও স্থগিত ঘোষণা করে দেয় বিসিবি। এরপর একে একে স্থগিত হয়েছে জাতীয় দলের ৪টি সিরিজ। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বিশ্ব একাদশ ও এশিয়া একাদশের দুটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু শেষ মুহূর্তে ভেস্তে যায় এই করোনা মহামারিতে।

বছরের অর্ধেকের বেশি সময় দেশে ক্রিকেট মাঠে না গড়ালেও বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড বদ্ধ ক্রিকেট দুয়ার খুলে দুটি ঘরোয়া টুর্নামেন্ট দিয়ে। প্রথমে ৩ দল নিয়ে বিসিবি প্রেসিডেন্ট কাপ আয়োজন করা হয়। ‘জৈব সুরক্ষার’ বলয়ে থেকে সফলভাবে সম্পন্ন হয় ৫০ ওভারের এই টুর্নামেন্ট। বিসিবি সেখান থেকে সঞ্চার করে সাহস-অভিজ্ঞতা। দল বাড়িয়ে ছোট ফরম্যাটে আয়োজন করে বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপ। বিপিএল আয়োজন সম্ভব নয় বলে নভেম্বর-ডিসেম্বরে মাঠে গড়ায় পাঁচ দল নিয়ে এই টুর্নামেন্ট।

এই টুর্নামেন্ট দিয়ে ক্রিকেটে ফিরেন ১ বছরের নিষেধাজ্ঞায় থাকা সাকিব আল হাসান। শেষ পর্যন্ত আসর সেরাও হয় তার দল জেমকন খুলনা। এই দলেরও নেতৃত্ব দেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। এর আগে বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপেও দলকে শিরোয়া জেতান রিয়াদ।

ঘরোয়া ক্রিকেটে মার্চে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের কেবল এক রাউন্ড হয়েই স্থগিত হয়ে যায়। সেই আসর শুরু করা যায়নি এখনও। জাতীয় লিগ, বিসিএলের মতো টুর্নামেন্টগুলোও স্থগিত হয়ে যাওয়ায় এসব আয়োজন হয়নি কিছুই।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট

১১ মার্চ আসে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মহামারীর ঘোষণা। তখন চলছিল শ্রীলঙ্কা-ইংল্যান্ড, ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকা ও অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড সিরিজ। দু’একদিনের ব্যবধানে সে সময় স্থগিত হয়ে যায় সেই সিরিজগুলো। এপ্রিলের আইপিএলও পিছিয়ে যায়। তবে শঙ্কা কাটিয়ে মাঠের ক্রিকেট ফেরাতে এগিয়ে আসে ইংল্যান্ড। তাদের বড় সহায়তা করে আইসিসি। ১১৭ দিন পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফেরায় ইংল্যান্ড এন্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড। গত ৮ জুলাই সাউদাম্পটনে টেস্ট খেলতে নামে ইংল্যান্ড-উইন্ডিজ। এরপর পাকিস্তান ও অস্ট্রেলিয়াকে আতিথেয়তা দেয় ইংলিশরা।

তাদের দেখাদেখি নিজেদের মাঠে ক্রিকেট ফেরায় নিউজিল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়া। পাকিস্তান-দক্ষিণ আফ্রিকাও হাঁটে এই পথে। দমে থাকে নি ভারতও। নিজেদের মাঠে আইপিএল আয়োজন সম্ভব নয় বলে আরব আমিরাতের মাঠে জমজমাট আসর সম্পন্ন করে বিসিসিআই। ক্যারিবিয়ান ক্রিকেট বোর্ড সিপিএল আয়োজন করে আইপিএলের আগে। গত জুলাইয়ে এ বছরের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ এক বছরের জন্য পিছিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় আইসিসি।

আরও যা আলোচিত

  • এই বছর দর্শকে পরিপূর্ণ মেলবোর্নে অস্ট্রেলিয়ার নারী বিশ্বকাপ জয় করে অস্ট্রেলিয়া।
  • অবসর নেন মাহেন্দ্র সিং ধোনি ও সুরেশ রায়না।
  • ক্যারিবীয় মহানায়ক স্যার এভারটন উইকস ও অস্ট্রেলিয়ার বিশ্বকাপজয়ী ডিন জোন্সের বিদায়।
  • দেশের ক্রিকেটে বাঁহাতি স্পিনের অগ্রপথিক, কিংবদন্তি ক্রিকেট ব্যক্তিত্ব রামচাঁদ গোয়ালাও এই বছরে মারা যান।

এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/১১০