অলকদের হারিয়ে সিলেট টি-টোয়েন্টি ব্লাস্টের ফাইনালে তান্নার দল

ফাইল ছবি।

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ সিলেট টি-টোয়েন্টি ব্লাস্ট ২০২১’এ প্রথম দল হিসেবে ফাইনালে উঠল কুশিয়ারা রয়্যালস। সেমিফাইনালে আজ অলক কাপালির স্টার প্যাসিফিক স্ট্রাইকার্সকে ১৯ রানের হারিয়ে ইমতিয়াজ হোসেন তান্নার দল উঠল ফাইনালে। ইমন মাহমুদের শিষ্যদের সামনে ব্যাটে-বলে রীতিমতো উড়ে গেছে রাজিন সালেহর শিষ্যরা।

টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুতে ধুঁকতে থাকে কুশিয়ারা রয়্যালস। পাওয়ার প্লে’তে ৩৫ রানের বিনিময়ে টপ অর্ডারে তিন ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে ফেলে দলটি। তবে এদিন চমক দিয়ে টপ অর্ডারে পেস বোলার রুহেলকে ব্যাটিং করতে পাঠায় কুশিয়ারার টিম ম্যানেজম্যান্ট। ২ ছক্কা ও ১ চারে ২০ বলে ২৪ রান করেন ওপেনিংয়ে নামা এই বাঁহাতি।

ধুঁকতে থাকা কুশিয়ারার হাল ধরেন মুক্তার আলি এবং ওয়াসিফ। সপ্তম উইকেটে তাদের ৪৯ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি ম্যাচের পাল্লা নিয়ে যায় রয়্যালস শিবিরের দিকে। শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেটের বিনিময়ে ১৩৯ রানের চ্যালেঞ্জিং পুঁজি পায় কুশিয়ারা রয়্যালস। ওয়াসিফ ২৬ বলে ৭ চারের মারে ৪৩ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে অপরাজিত থাকেন। মুক্তার আলি অপরাজিত থাকেন ১৫ বলে ৩ ছক্কায় ২৫ রানের ইনিংস কার্যকরী ইনিংস খেলে।

স্টার প্যাসিফিকের হয়ে অলক কাপালি একাই ২৫ রান খরচায় ৩টি উইকেট শিকার করেন।

১৪০ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে স্ট্রাইকার্সরা। শেষ পর্যন্ত ১ বল হাতে রেখেই ১২০ রানে গুঁটিয়ে যায় দলটির ইনিংস। সর্বোচ্চ ২১ রান আসে অধিনায়ক অলক কাপালির ব্যাট থেকে। এছাড়া নাহিদুল ইসলাম ১৪ বলে ১৯ রান করেন।

কুশিয়ারা রয়্যালসের হয়ে বল হাতে আল আমিন জুনিয়র ১৭ রানে ৩ উইকেট লাভ করেন। এছাড়া মাহবুব ২৮ রানে ও আবিদ ১৪ রানে ২টি করে উইকেট ঝুলিতে ভরেন। ম্যাচ সেরা হয়েছেন ২৬ বলে ৪৩ রানের দারুণ ইনিংস খেলা ওয়াসিফ।

এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/সা