অ্যাশেজে চরম ব্যর্থ দল, তবুও নিজেকে যোগ্য বলছেন রুট

স্পোর্টস ডেস্কঃ টেস্ট ক্রিকেটে গেল বছরটা মোটেও ভালো কাটেনি ইংল্যান্ডের। সদ্য ফেলে আসা ২০২১ সালে ৯ হারে নতুন রেকর্ড গড়েছে ইংলিশরা। এক বছরে সর্বোচ্চ টেস্ট হারের রেকর্ড এটি। যেটি ছিল আগে বাংলাদেশের একার। তবে সেই জায়গায় এখন বাংলাদেশের সাথে যৌথভাবে এক বছরের সর্বোচ্চ হারের রেকর্ড।

অবশ্য নতুন বছরের শুরুটা তুলনামূলক ভালো খেলেছে ইংল্যান্ড। অ্যাশেজের চতুর্থ টেস্ট ড্র করেছে ইংলিশরা। সিডনি টেস্টে তুলনামূলক ভালো খেললেও, অ্যাশেজের ব্যর্থতা ডাকতে পারবে না ইংলিশরা। পঞ্চম টেস্টে ফের হারের তিক্ততা পেয়েছে দলটি। ঐতিহ্যবাহী সিরিজের পাঁচ ম্যাচ শেষে ৪-০’তে জিতে নিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। সিরিজ হারের পাশাপাশি স্বাগতিকদের কাছে হোয়াইটওয়াশ হবার শঙ্কা দেখা দিয়েছিল।

দল হিসেবে একবারেই মলিন সময় পার করছে ইংল্যান্ড। অ্যাশেজে ন্যুনতম প্রতিযোগীতা করতে পারেনি ইংলিশরা। অ্যাশেজ হারের পর সেটা ষোলকলা পূর্ণ হয়েছে। এছাড়া ২০১৩ সালের পর থেকে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে টেস্ট জয়ের কোনো সুখস্মৃতি নেই।

আর এতেই ইংল্যান্ড অধিনায়ক জো রুটের নেতৃত্ব গুণ নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। ব্যক্তিগত পারফর্মেন্সে উজ্জ্বল হলেও, অধিনায়ক হিসেবে ব্যর্থ ছিলেন তিনি। তাই তারকা ক্রিকেটার নেতৃত্বের যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। তবে প্রশ্ন উঠলেও, নিজেকে এখনও যোগ্য মনে করছেন জো রুট।

রুট বলেন, ‘আমার মনে হয়, এই কাজে (অধিনায়কত্ব) আমিই যোগ্য ব্যক্তি। আমার জয়ের ক্ষুধা রয়েছে। আমার জন্য বিষয়টি খুবই আনন্দের। আমি মনে করি সতীর্থদের থেকে যথেষ্ট পরিমাণ সমর্থন পাচ্ছি। আমি এই কাজে অনেক বেশি অভিজ্ঞ। আমার মনে এখন আরও এক ধাপ এগিয়ে যাওয়ার সময় আমাদের।’

এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/ডেস্ক/সা