আইসিসির কাছে ম্যাচ চলাকালে বল জীবাণুমুক্ত করার অনুমতি চায় অস্ট্রেলিয়া

    স্পোর্টস ডেস্ক:: করোনাভাইরাসকে জয় করে ক্রিকেট মাঠে ফেরাতে চাইছে অস্ট্রেলিয়া। সেজন্য দলটি ঘরোয়া ক্রিকেটও শুরু করতে চায়। অবশ্য এজন্য অস্ট্রেলিয়া বোর্ডের চিকিৎসকরা বেশ কিছু সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। স্বাস্থ্য বিধি মেনেই ক্রিকেটাররা ম্যাচ খেলতে পারবেন।

    আইসিসিও ক্রিকেট মাঠে ফেরাতে বেশ কিছু সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছে। আন্তর্জাতিক ম্যাচ পরিচালনা করবেন স্থানীয় আম্পায়াররা। বাড়ানো হচ্ছে ডিআরএসের সংখ্যাও। বলের লালা বা থুতু ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা আসছে, আম্পায়ারদের অধীনে ক্রিকেটাররা বলের উজ্জ্বলতা বাড়াতে পারবেন মোম দিয়ে।

    ক্রিকেট অষ্ট্রেলিয়া (সিএ) এবার আইসিসির কাছে অনুমতি চেয়েছে ম্যাচ চলাকালে বলকে জীবাণুমুক্ত করার। করোনার ঝুঁকি কমাতেই এমন উদ্যোগ নিচ্ছে অস্ট্রেলিয়ার মেডিকেল টিম। আইসিসি ম্যাচ চলাকালে ক্রিকেট বল জীবাণুমুক্ত করার অনুমতি দিলে অন্যান্য দেশের জন্যও সুবিধা। সবগুলো বোর্ডই ম্যাচ চলাকালে বলকে জীবাণুমুক্ত করতে পারবে।

    ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার সাইন্স অ্যান্ড স্পোর্টস মেডিসিন ম্যানেজার অ্যালেক্স কৌনতুরিস বুধবার এক ভিডিও কনফারেন্সে বলেন, ‘বলকে জীবাণুমুক্ত করার বিষয়টি নিয়ে ভাবছি আমরা।’

    কৌনতুরিস জানিয়েছেন, বল থেকে ভাইরাস ছড়ানোর ঝুঁকি বেশি। যার কারণে ম্যাচ চলাকালে বারবার বলকে জীবাণুমুক্ত করতে হবে। তিনি বলেন, ‘আমরা জানি না, বলে কেমন ঝুঁকি থাকবে। কেননা সেটাকে তো পরীক্ষা করা হবে না। অবশ্যই আমাদের পরীক্ষা করা উচিত। আমরা আইসিসির সঙ্গে এটা নিয়ে কথা বলব এবং অনুমোদন চাইব।’

    অস্ট্রেলিয়া বোর্ডের এই চিকিৎসক মনে করেন ক্রিকেট বলকে জীবাণুমুক্ত করা বেশ ‘কঠিন’ কাজ। তিনি বলেন, ‘চামড়ার বলকে জীবাণুমুক্ত করা কঠিন। কারণ এতে অনেক খাঁজ-ভাজ থাকে। তাই আমরা জানি না, এটা কতটা ফলপ্রসূ হবে। বল কতটা সংক্রমণের কারণ হতে পারে আমরা তাও জানি না। জানি না (জীবাণুমুক্ত করার) অনুমোদন পাওয়া যাবে কি না। তবে আমরা এটা নিয়ে অবশ্যই ভাবছি। সবকিছুই আলোচনার মধ্যে আছে।’

    এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/ডেস্ক/০০