ইতালির প্রস্তাব ফিরিয়ে আর্জেন্টিনাকেই কাছে টেনে নিলেন সেনেসি

স্পোর্টস ডেস্কঃ আসছে জুনের শুরুতে ফুটবল মহারণে মুখোমুখি হবে আর্জেন্টিনা ও ইতালি। মূলত লাতিন আমেরিকা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন (কনমেবল) ও ইউরোপের ফুটবল সংস্থা (উয়েফা) আয়োজন করছে এই ম্যাচের। কোপা আমেরিকা জয়ী আর্জেন্টিনা ও ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপ জয়ী ইতালির মধ্যকার ম্যাচটির নাম দেওয়া হয়েছে ‘ফাইনালিসিমা’। লন্ডনের বিখ্যাত ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে ম্যাচটি আয়োজিত হবে আগামী ১ জুন।

সেই ম্যাচের জন্য সপ্তাহ খানেক আগে ৩৫ সদস্যের প্রাথমিক স্কোয়াড ঘোষণা করেছিলেন আর্জেন্টিনার প্রধান কোচ লিওনেল স্কালোনি। এবার সেখান থেকে ছয় জনকে বাদ দিয়ে ২৯ সদস্যের চূড়ান্ত স্কোয়াড ঘোষণা করেছেন তিনি।

প্রাথমিক দলের পর এই চূড়ান্ত দলেও মার্কোস সেনেসিকে রেখেছেন স্কালোনি। যাকে নিয়ে কিনা টানাটানি চলছিল ইতালির সাথে। সেনেসিকে প্রাথমিক দলে রেখেছিল ইতালিও। তবে ইতালির প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছেন এই তরুণ ডিফেন্ডার। শেষ পর্যন্ত জন্মভূমি আর্জেন্টিনাকেই বেছে নিয়েছেন তিনি।

মূলত ডাচ ক্লাব ফেয়েনুরডেতে খেলা সেনেসির জন্ম আর্জেন্টিনায়। তবে তিনি ইতালিয়ান বংশোদ্ভুতও। যার ফলে দুই দেশেরই অধিকার আছে এই ফুটবলারকে জাতীয় দলে খেলানোর। কিন্তু সমস্যাটা হয়েছে দুই দেশই চায় তাকে দলে রাখতে। আর্জেন্টিনার পরিকল্পনায় চলতি বছর হতে যাওয়া ফুটবল বিশ্বকাপ। অপরদিকে টানা দুই বিশ্বকাপে খেলার যোগ্যতা অর্জন করতে না পারা ইতালির পরিকল্পনা ভবিষ্যত নিয়ে।

দুই দলই আগামী ১ জুন একে-অপরের মুখোমুখি হবে। এই দুই দলই প্রাথমিক দলে রেখেছিল সেনেসিকে। তবে রবার্তো মানচিনির দেওয়া প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছেন সেনেসি। ২৫ বছর বয়সী এই ফুটবলার বেছে নিয়েছেন লা আলবিসেলেস্তার জার্সিকেই। যার ফলে এক ফুটবলারকে টানাটানিতে শেষ পর্যন্ত জয়ী হলো আর্জেন্টিনাই। এর আগেও আর্জেন্টিনার বয়সভিত্তিক দলে খেলার অভিজ্ঞতা আছে সেনেসির।

ইতালির বিপক্ষে ম্যাচের জন্য আর্জেন্টিনার ২৯ সদস্যের চূড়ান্ত দল

গোলরক্ষক: এমিলিয়ানো মার্টিনেজ (অ্যাস্টন ভিলা), ফ্রাঙ্কো আরমানি (রিভার প্লেট), জেরোনিমো রুলি (ভিয়ারিয়াল) ও জুয়ান মুসো (আতালান্তা)।

ডিফেন্ডার: গঞ্জালো মন্টিয়েল (সেভিয়া), জুয়ান ফয়েথ (ভিয়ারিয়াল), নাহুয়েল মোলিনা (উদিনেস), জার্মান পেজ্জেলা (রিয়াল বেতিস), নিকোলাস ওটামেন্ডি (বেনফিকা), নেহুয়েন পেরেজ (উদিনেস), ক্রিশ্চিয়ান রোমেরো (টটেনহ্যাম), মার্কোস সেনেসি (ফেইনর্ড), লিসান্দ্রো মার্টিনেজ (আয়াক্স) ও নিকোলাস তাগলিফিকো (আয়াক্স)।

মিডফিল্ডার: মার্কোস অ্যাকুনা (সেভিয়া), গুইডো রদ্রিগেজ (রিয়াল বেতিস), রদ্রিগো ডি পল (অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ), এক্সিকিয়েল প্যালাসিওস (বায়ার লেভারকুসেন), জিওভানি লো সেলসো (ভিয়ারিয়াল), অ্যালেক্সিস ম্যাক অ্যালিস্টার (ব্রাইটন) ও আলেজান্দ্রো গোমেজ (সেভিয়া)।

ফরোয়ার্ড: লিওনেল মেসি (পিএসজি), পাওলো দিবালা (জুভেন্টাস), অ্যাঞ্জেল কোরেয়া (অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ), অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়া (পিএসজি), নিকোলাস গঞ্জালেজ (ফিওরেন্টিনা), জোয়াকুইন কোরেয়া (ইন্টার মিলান), লাউতারো মার্টিনেজ (ইন্টার মিলান) ও জুলিয়ান আলভারেজ (রিভার প্লেট)।

এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/ডেস্ক/সা