ইন্ডিপেন্ডেন্স কাপের ফাইনালে সৌম্য-মুস্তাফিজরা

ছবিঃ বিসিবি।

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ ফাইনালে যেতে হলে জিততে হবেই। সঙ্গে বাড়াতে হবে রান রেট। বিসিবি নর্থ জোনের দেওয়া ২১৭ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে নিজেদের কাজটা বেশ ভালোভাবেই করেছে ইসলামী ব্যাংক ইস্ট জোন। ৪ উইকেটের জয়ের পাশাপাশি ১২ ওভারের বেশি কিংবা ৭৯ বল বাকি থাকতেই ইমরুল কায়েসের দল ছিনিয়ে এনেছে জয়।

সিলেট ক্রিকেট স্টেডিয়াম গ্রাউন্ড-২’এ অনুষ্ঠিত এই ম্যাচে জয় পেয়েই, ইস্ট জোনের ক্রিকেটার ও সাপোর্ট স্টাফের সদস্যরা সোজা দৌড়ে চলে গেছেন সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ওয়ালটন সেন্ট্রাল জোন ও বিসিবি সাউথ জোনের মধ্যকার ম্যাচের অবস্থা দেখতে। কেননা ঐ ম্যাচেই ঝুলে ছিল তামিম-ইমরুলদের ইন্ডিপেন্ডেস কাপের ফাইনাল ভাগ্য।

তবে সেই ভাগ্য সুপ্রসন্ন হলো না ইস্ট জোনের। কেননা সেই ম্যাচে সাউথ জোন ৫ উইকেটে হারিয়ে দিয়েছে সেন্ট্রালকে। আর এতেই আফিফ-নাঈমদের স্বপ্নভঙ্গ হয়। মনমড়া হয়ে সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম থেকে বেরিয়ে আসতে দেখা যায় ইসলামী ব্যাংকের ক্রিকেটার ও সাপোর্ট স্টাফদের।

অপরদিকে ৫ উইকেটের জয়ে জাকির হাসানের নেতৃত্বাধীন সাউথ জোন চলে যায় ফাইনালে। শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে তাদের প্রতিপক্ষ সেই সেন্ট্রাল জোন। আগামী ১৫ ডিসেম্বর শনিবার সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে সেই শিরোপা নির্ধারনী ম্যাচটি। অন্যান্য ম্যাচের মতো সকাল ৯টায় শুরু হবে।

নিয়ম অনুযায়ী গ্রুপ পর্বের খেলায় শীর্ষ দুই দলের নিশ্চিত হবে ফাইনাল। সেই অনুযায়ী শীর্ষে আছে সেন্ট্রাল ও সাউথ জোন। পয়েন্ট টেবিলে ৩ ম্যাচে ২ জয় ও ১ হারে ৪ পয়েন্ট নিয়ে রান রেটে এগিয়ে থেকে সবারর শীর্ষে অবস্থান করছে সেন্ট্রাল জোন। সমান ম্যাচে, সমান জয়-পরাজয়ে রান রেটে পিছিয়ে থেকে দুই নম্বরে অবস্থান করছে সাউথ জোন।

সমান ম্যাচে ২ হার ও ১ জয়ে ২ পয়েন্ট নিয়ে রান রেটে এগিয়ে থেকে তিন নম্বরে আছে ইসলামী ব্যাংক ইস্ট জোন। আর সমান ম্যাচ খেলে, সমান জয়-পরাজয়ে রান রেটে পিছিয়ে থেকে নর্থ জোন অবস্থান করছে সবার তলানিতে চার নম্বরে। যার ফলে শীর্ষে থাকা সৌম্য-মোসাদ্দেকের সেন্ট্রাল ও মুস্তাফিজ-জাকিরের সাউথ খেলবে ফাইনালে।

এর আগে বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগের (বিসিএল) চার দিনের ফরম্যাটে এই দুই দলই খেলেছিল ফাইনাল। এবার ফরম্যাট বদলে গেলেও, সেটারই পুনরাবৃত্তি হয়েছে। তবে ফলাফল কার পক্ষে যায় সেটা বলবে সময়ই। এর আগে চার দিনের ক্রিকেটে সাউথ জোনকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল সেন্ট্রাল জোন।

এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/ডেস্ক/সা