উইকেট ভালো ছিলো, বল ব্যাটে এসেছে- মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ

0
27

স্পোর্টস ডেস্ক:: ব্যাটিং ব্যর্থতায় হেরেছে বাংলাদেশ দল। ডোমিনিকার উইন্ডসর পার্কের উইকেট যথেষ্ঠ ভাল ছিলো, বলও ব্যাটে এসেছে। বাংলাদেশ অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ম্যাচ শেষে নিজেও স্বীকার করেছেন বিষয়টি। স্বাগতিক উইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় টি-২০ ম্যাচটিতে ৩৫ রানে হেরেছে বাংলাদেশ।

আগে ব্যাট করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ মাত্র ৫ উইকেটে ১৯৩ রানের বড় পূঁজি গড়ে। ১৯৪ রানের টার্গেটে খেলতে নামা বাংলাদেশ সাকিবের ফিফটিতে শেষ পর্যন্ত থেমেছে ৬ উইকেটে ১৫৮ রানে। সাকিব ছাড়া বাংলাদেশের কোনো ব্যাটারই উইকেটে রান তুলতে পারেননি। দ্রুতই ফিরেছেন সাজঘরে।

যে উইকেটে ব্যাটিং করে বাংলাদেশ টেনেঠুনে দেড়শো উর্ধ্ব ইনিংস গড়েছে, সেখানেই স্বাগতিকরা দুইশো ছুঁই ছুঁই স্কোর গড়েছে। তাতে অবশ্য ডোমিনিকার উইকেটের কোনো দায় নেই। আগের দিন বৃষ্টি থাকলেও ম্যাচের দিন ছিলো না বৃষ্টি। যথা সময়ে ম্যাচ শুরু হয়েছে। শেষ হয়েছে।

উইকে্ট কাভারে ডাকা থাকলেও বিরুপ কোনো আচরণ করেনি। বাংলাদেশের ব্যাটিংয়ের সময়ও উইকেট ভালো ছিলো। বলও ব্যাটে এসেছিলো। তবে পারেননি ব্যাটাররা। ম্যাচ শেষে বাংলাদেশ অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ বলেন, ‘উইকেট ভালো ছিল। বল ব্যাটে এসেছে।’

উইকেটের কারণে নাসুমের জায়গায় তাসকিন খেলেছেন আর চোটের কারণে মুনিমের জায়গায় মোসাদ্দেক খেলেছেন জানিয়ে বাংলাদেশ অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ বলেন, ‘আগের দিন বৃষ্টি দিয়েছে। উইকেট ডাকা ছিলো। মনে হয়েছিলো নাসুমের জায়গায় তাসকিন ব্যাটার হবে, তাই ওকে নেওয়া হয়েছে। সকাল বেলা আমরা জানতে পারি মুনিমের ব্যাক পেইন আছে, তখনি মোসাদ্দেককে নেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়।’

পাওয়ার প্লেতেই পিছিয়ে পড়ে দল জানিয়ে তিনি বলেন, ‘১৯০ রান যখন চেঞ্চ করবেন, তখন ভালো একটা শুরু দরকার। আমরা প্রথম ৬ ওভারের মধ্যেই তিন উইকেট হারিয়ে ফেলি ৪৪ রানের মধ্যে, ওই সময়ই কিছুটা পিছিয়ে পড়ি।’ দু’জন ডানহাতি ব্যাটার থাকায় মোসাদ্দেককে এক ওভারের বেশি বোলিং করাননি জানিয়ে তিনি বলেন, ‘মোসাদ্দেককে বোলিং করাতাম। কিন্তুু ওই সময় দু’জন ডানহাতি ব্যাটসম্যান ছিলো। যার কারণে তাসকিনকে বোলিংয়ে আনি। সাকিব বোলিং করছিলো।’

১৯৪ রানের বড় লক্ষ্যে খেলতে নামা বাংলাদেশ শুরুতেই হোঁচট খায়। জয়ের লক্ষ্য থেকে হয়তো তখন টিকে থাকার লক্ষ্য। ব্যাট হাতে সাকিব শেষ পর্যন্ত টিকে থাকলেন। ধীরগতির ব্যাটিংয়ে হাফ সেঞ্চুরিও হাঁকিয়েছেন। তবে শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশ হেরেছে ৩৫ রানে। ১৯৪ রানের টার্গেটে খেলতে নামা বাংলাদেশ ৬ উইকেটে ১৫৮ রান তুলতে পেরেছে। তিন ম্যাচের টি-২০ সিরিজের প্রথম ম্যাচটি বৃষ্টিতে ভেসে যায়। দ্বিতীয় ম্যাচটি জিতে লিড নিলো স্বাগতিকরা। সিরিজ বাঁচাতে হলে ৭ জুলাইয়ের শেষ ম্যাচে জিততে হবেই টাইগারদেরকে।

সাকিব, আফিফ ও মোসাদ্দেক ছাড়া বাংলাদেশের কোনো ব্যাটাররা তেমন রানের দেখাই পাননি। পাঁচ চার ও তিন ছয়ে ৫২ বলে ৬৮ রানে শেষ পর্যন্ত সাকিব অপরাজিত থেকেছেন। তবে শুরুর ধীরগতির ব্যাটিংয়ের কারণে লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারেননি দলকে। আফিফ হোসেন ধ্রুবও দারুণ শুরু করে ফিরেন দ্রুতই। তিন চার ও এক ছয়ে ২৭ বলে ৩৪ রানের টি-২০ উপযোগী একটি ইনিংস খেলেন তিনি। এক ছক্কায় ১৫ রানের ইনিংস খেলেন মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত। ১১ রান করেন অধিনায়ক নিজে। ব্যাটিং উইকেটের সুবিধা নিতে পারেননি ব্যাটাররা। দুই অঙ্কের ঘর ছুঁতে পারেননি অন্য কেউ।

এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/ডেস্ক/০০

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here