উদ্বোধনের অপেক্ষায় দেশের সবচেয়ে বড় ক্রীড়া আসর

নিজস্ব প্রতিবেদক:: বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় ক্রীড়া আসর বাংলাদেশ গেমস। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষ্যে এবারের গেমসের নাম করণ করা হয়েছে বঙ্গবন্ধু-বাংলাদেশ গেমস।

একদিন পরেই উদ্বোধন হবে নবম বঙ্গবন্ধু-বাংলাদেশ গেমসে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠান ঘিরে সরগরম বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভার্চুয়ালি গেমসের উদ্বোধন করবেন। এরই মধ্যে সকল প্রস্তুুতিও সম্পন্ন করা হয়েছে।

উদ্বোধন উপলক্ষ্যে বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামের গেইট দর্শকদের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হবে বিকেল ৩টায়। মূল অনুষ্ঠান শুরু হবে সন্ধ্যা পৌনে ৭টায়। জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে শুরু হবে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। এরপরই অডিও ভিজ্যুয়াল প্রদর্শনী হবে।

অডিও ভিজ্যুয়াল প্রদর্শনীতে তুলে ধরা হবে বাংলাদেশের খেলাধুলার ইতিহাস-ঐতিহ্য। এরপরই অংশগ্রহণকারী দলগুলো মাঠে প্রবেশ করবে। উপস্থিত প্রতিযোগিদের প্রতিযোগিতার শপথবাক্য পাঠ করাবেন দেশের তারকা আরচার রোমান সানা।

শপত পাঠ শেষে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখবেন বিওএর মহাসচিব সৈয়দ শাহেদ রেজা। শুভেচ্ছো বক্তব্য রাখবেন বিওএ সভাপতি ও গেমসের সাংগঠনিক কমিটির নির্বাহী চেয়ারম্যান সেনাপ্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ এবং যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল এমপি।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সন্ধ্যা সোয়া ৭টায় ভার্চুয়ালি গেমসের উদ্বোধন ঘোষণা করবেন। এরপর মশাল প্রজ্জ্বলন করবেন গলফার সিদ্দিকুর রহমান ও সাঁতারু মাহফুজা খাতুন শীলা। সবশেষে থাকবে মাসকট প্যারেড, বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ নিয়ে প্রদর্শনী। আতশবাজির মধ্যে দিয়ে শেষ হবে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আনুষ্টানিকতা।

এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/ডেস্ক/০০