‘এখনো আমাদের নিয়ন্ত্রণে, সকালের সুবিধা নিয়ে সাকিবকেই বিশেষ কিছু করতে হবে’

অলক কাপালী, অতিথি লেখক:: আজকে তৃতীয় দিন শেষ হয়েছে বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া টেস্টের। বাংলাদেশ অলআউট হয়ে যাওয়াotete-lekokতে এবং ২৬৫ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে অস্ট্রেলিয়া ২ উইকেটে ১০৯ রান সংগ্রহ করাতে অনেকেই বলছেন ম্যাচ থেকে আমরা ছিটকে পড়েছি। তবে আমি তা মনে করি না। ম্যাচ এখনো আমাদের নিয়ন্ত্রণে আছে।

এই ম্যাচ আমরাও জিততে পারি। এটা ঠিক আমাদের সংগ্রহটা কম হয়ে গেছে। গতকালই বলে ছিলাম কমপক্ষে তিনশো রান করতে হবে। তিনশোর উপরে করলে আরো ভাল। কিন্তুু আমরা পারিনি। হিসেবের চেয়ে ৩০ রান কম সংগ্রহ করেছি আমরা।

প্রথম ইনিংসে যেখানে আমরা ২৬০ করতে পেরেছি, সেখানে অস্ট্রেলিয়া ২১৭ রানে অলআউট হয়েছে। দ্বিতীয় ইনিংসে এখনো অস্ট্রেলিয়া পিছিয়ে আছে। কাল চতুর্থ দিনেই ম্যাচের নিষ্পত্তি হতে পারে। এদিনের সকালটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। নিয়ন্ত্রিত বোলিং করে সফরকারীদের চেপে ধরতে হবে। সকালে দ্রুত উইকেট নিতে পারলে ম্যাচটা আমরাই জিতবো। শুধু উইকেটের দিকে না চেয়ে একই সঙ্গে রানের চাকাকে চেপে ধরতে হবে। জায়গা মত বল করতে হবে।

বাংলাদেশের উইকেটে চতুর্থ দিন সকালে বোলাররা সুবিধা পান। এদিন সকালে উইকেটে বল টার্ন করবে, তাই সাকিবকে দায়িত্ব নিয়ে বিশেষ কিছু করতে হবে। সঙ্গে মিরাজকেও সাপোর্ট দিতে হবে। এ দু’জন উইকেটের সুবিধা কাজে লাগাতে পারলে বেশ ভুগতে হবে অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটসম্যানদের।

আজকে সাকিব রান পায়নি। এটা আমাদের মেনে নিতে হবে। একজন ব্যাটসম্যান প্রতিদিন রান পাবে না। তামিম ঠিকই তাঁর কাজটা করে গেছে। তবে সে আরো কিছুটা সময় থাকলে ভালো হতো। তামিম উইকেটে থাকলে হয়তো আজকে আমরা অলআউট-ই হতাম না। দিন শেষে দেখতে পেতাম ৩/৪ উইকেট হাতে আছে। তামিমের আউটটা দুর্ভাগ্য জনক। মুশফিকুর রহিমের আউট নিয়ে কিছু বলার নেই। ক্রিকেটে এমনটাই হয়। এটা সবাইকে স্বাভাবিক ভাবেই নিতে হবে। কেউ ইচ্ছা করে কিন্তু আউট হয় না।

সৌম্য সরকার এবং সাব্বির রহমান রুমান আমাদের স্বীকৃত ব্যাটসম্যান। তবে ওদের সময়টা খারাপ যাচ্ছে বলবো। তবুও আজকে তাদের আরেকটু দায়িত্ব নিয়ে খেললো ভালো হতো।  চেষ্টা করছে, হয়তো পারছে না ছেলেগুলো। অতীতে সাব্বির রহমানের ভালো ইনিংসও আছে। তাদেরকে আরেকটু সময় দিতে হবে। আশা করবো ভবিষ্যতের জন্য তাঁরা দু’জন দ্রুতই ফর্মে ফিরে আসবে।

এই টেস্টে স্বাভাবিক ভাবে দেখা যায়নি ইমরুল কায়েসকে।  কায়েস অতীতে তামিমের সঙ্গে ওপেনিংয়ে ভালোই খেলেছে। পাকিস্তানের বিপক্ষে টেস্টে তার ঐতিহাসিক একটি ইনিংস আছে। সেটাও উদ্বোধনী জুটি থেকেই এসেছে। তাঁর ব্যাটিং পজিশনটা পরিবর্তন হওয়াতে সম্ভবত সমস্যা হচ্ছে। আশা করবো দ্রুতই সে নিজেকে মানিয়ে নেবে এবং ফর্মে ফিরে আসবে। কালকের দিনটি আমাদের হোক। আমরা প্রথমবারের মত টেস্টে অস্ট্রেলিয়া বধের উৎসবে মেতে উঠি, সেই প্রত্যাশাই থাকলো।

লেখক:: জাতীয় দলের সাবেক ক্রিকেটার।

এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/অতি/০০