এসএনপিস্পোর্টসের সঙ্গে গল্পে আড্ডায় মাশরাফি

জাতীয় ওয়ানডে দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজার সঙ্গে কথা বলছেন এসএনপিস্পোর্টসের নির্বাহী সম্পাদক কাইয়ুম আল রনি। ছবিটি তুলেছেন আমাদের প্রধান আলোকচিত্রী অনির্বান সেনগুপ্ত প্রিতম।

বদলে যাওয়া যেকোন গল্পের শুরুটা একটু অন্যরকম। তার ক্ষেত্রেও ব্যাতিক্রম হয় নি, ২০০৯ সালে দায়িত্ব পাওয়ার পর ইনজুরির কারণে মাঠের বাইরে। এর আগে দেশের জার্সিতে কাটানো ৮ বছরের বেশির ভাগ সময়েই কেটেছে মাঠের বাইরে বসে। ইনজুরি এতোটা আচ্ছন্ন করে ফেলেছিল যে জাতীয় দলে তার খেলাটা কিংবা ক্রিকেটে ফিরে আসাটা এক দু:সাধ্য কল্পনা হয়ে দাঁড়িয়েছিল। সেই দু:সাধ্য কল্পনাকে দূর আকাশের তারা বানিয়ে তিনি ফিরে এসেছেন। ২০১১ সালের বিশ্বকাপে বাংলাদেশের জার্সি গায়ে জড়াতে না পারায় দু:খ আজীবন বয়ে বেড়াবেন, প্রায়ই একথাটা বলে থাকেন। বিশ্বকাপ পর জাতীয় দলে নিয়তিম হলে ইনজুরির শঙ্কা ছিলো প্রায় সময়েই। ২০১৪ সালে কোণঠাসা হয়ে পড়া বাংলাদেশের ক্রিকেটের ক্রান্তিলগ্নে আবারো দায়িত্ব বুঝে নেন। আর তার হাত ধরেই বদলে যাওয়া বাংলাদেশ নাম পেয়ে যায় বর্তমান দলের টাইগাররা। দুর্দান্ত সব ফর্মে বিশ্ব ক্রিকেটে নব্য শক্তি হিসেবে প্রতিষ্ঠা হয়েছে বাংলাদেশের নাম। এখন আর অঘটন নয় নিজেদের সেরাটা খেলেই জয় পায় বাংলাদেশ। বদলে যাওয়া বাংলাদেশের কারিগর,ড্রেসিংরুমে সর্তীথদের বড় ভাই কিংবা সিনিয়র খেলোয়াড় হিসেবে সমাধিক পরিচিত এক নাম মাশরাফি বিন মর্তুজা সম্প্রতি মুখোমুখি হয়েছিলেন দেশের প্রথম পূর্ণাঙ্গ খেলাধূলা ভিত্তিক গণমাধ্যম এসএনপিস্পোর্ট২৪ডটকমের। বাংলা  ক্রিকেটের জীবন্ত ‘কিংবদন্তী’ এই মহানায়কের সঙ্গে কথা বলেছেন আমাদের নির্বাহী সম্পাদক কাই্য়ুম আল রনি-

এসএনপিস্পোর্টস: জয় দিয়ে শুরু করলেন, এবারের বিপিএলে আপনাদের লক্ষ্য কি?

মাশরাফি: বিপিএল একটা লম্বা সময়ের মধ্যে দিয়ে যাবে। একটা ম্যাচ খেলেই ভবিষ্যৎ নিয়ে ভেবে লাভ হবে না, আমরা ম্যাচ বাই ম্যাচ চিন্তা করবো।mashrafe-25

এসএনপিস্পোর্টস: এবারের বিপিএলে রংপুর রাইডার্সের প্রাণ আপনি। তিনবারের চ্যাম্পিয়ন অধিনায়ক(বিপিএলে)আপনি থাকলে যে কোন দলই চ্যাম্পিয়ন হয়?

মাশরাফি: দেখুন, এটা কোনো বিষয় নয়। এই ধারণাটা ভূল। এবারের বিপিএলে সব উনিশ-বিশ টাইপের দল। যে কেউই চমক দেখাতে পারে। আমি কথা পরিষ্কার করে বলি, রংপুরের টার্গেট ম্যাচ বাই ম্যাচ খেলা।

এসএনপিস্পোর্টস: রংপুর দলটা কেমন?

মাশরাফি: এই দলটা বেশ ভালো। এখানে দেশী-বিদেশী উঁচুমানের ক্রিকেটার আছেন, সবাই টিমম্যান। আমার কাজ সবাইকে উৎফুল্ল রাখা, সতেজ রাখা। পরিকল্পনায় সাহায্য করা। রংপুর দল হয়ে সব সময় খেলতে চায়, খেলতেও থাকবে।

এসএনপিস্পোর্টস: বাংলাদেশ ক্রিকেটের সফল ক্যাপ্টেন আপনি? কতদূর যেতে চান সাফল্যে ভেসে?

মাশরাফি: সাফল্য আমি ভুলে যাই। আল্লাহ চাইলে যতোদিন ক্রিকেট খেলবো, দেশের জন্য খেলবো। জয় পরাজয় নিয়ে আমি কখনই ভাবিনা।

এসএনপিস্পোর্টস: এবার বিপিএল প্রসঙ্গের বাইরে একটু জানতে চাই, জাতীয় দলের সবশেষ আফ্রিকা সিরিজ সর্ম্পকে একটু বলবেন?

মাশরাফি: দেখুন, এই সিরিজটা আমাদের খুবই খারাপ গিয়েছে এটা সবারই জানা। দক্ষিণ আফ্রিকায় ক্রিকেট খেলা বিশ্বের যেকোন দেশের জন্যই অনেক কঠিন। আর আমরা অনেক দিনপর আফ্রিকায় খেলতে গিয়েছি। এমন না যে আমরা সিরিজ জিতেই ফিরতাম এমন একটা টার্গেট নিয়ে খেলতে গিয়েছিলাম। আমাদের দলের লক্ষ্য ছিলো প্রতিদ্বন্ধীতামূলক ক্রিকেট খেলা তিন ফরম্যাটেই। দুর্ভাগ্যবশত সেটা হয় নি।

এসএনপিস্পোর্টস: নতুন জায়গায় বিপিএল, সিলেটের আতিথেয়তা সম্পর্কে বলবেন?

মাশরাফি: সিলেট আমার ভালোলাগার জায়গা। এখানকার মানুষরা অতিথিপরায়ণ। স্বল্প সময়ের জন্য এখানে আসলেও এখানকার আতিথেয়তা আমাকে মুগ্ধ করেছে। সামনে আরো খেলা হলে অবশ্যেই সিলেটে আসতে চাইব। সিলেটের পরিবেশ সুন্দর। আরও বড় কথা মাঠটা অপরুপ। এমন মাঠে খেলতেও ভালো লাগে।

এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/০০