কুমিল্লার বিদায়, শেষ চারে মুশফিকের খুলনা টাইগার্স

স্পোর্টস ডেস্ক: কুমিল্লা ওয়ারিয়র্সকে বিদায় করে বঙ্গবন্ধু বিপিএলের শেষ চার নিশ্চিত করেছে খুলনা টাইগার্স। মুশফিক-মিরাজের ব্যাটে ৯২ রানের জয় পেয়েছে টাইগার্সরা। আগে ব্যাট করে খুলনা টাইগার্স ২ উইকেটে ২১৮ রান তুলে। জবাবে খেলতে নামা ৯ উইকেটে ১২৬ রান তুলতে সমর্থ হয়।

মুশফিকুর রহিম ও মেহেদী হাসান মিরাজের অসাধারণ ব্যাটিংয়ে কুমিল্লা ওয়ারিয়র্সের বিপক্ষে দুই উইকেটে ২১৮ রান করেছে খুলনা টাইগার্স। শুক্রবারের সন্ধ্যার ম্যাচে আগে ব্যাট করতে নামা খুলনা ৩৩ রানেই ২ উইকেট হারিয়ে কিছুটা চাপে পড়ে।

তৃতীয় উইকেটে ক্রিজে এসে মেহেদী মিরাজকে সঙ্গে নিয়ে দলের হাল ধরেন মুশফিক। ধীরে ধীরে ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠে এ জুটি। দুইজনই ব্যাট হাতে তাণ্ডব চালাতে শুরু করেন। মাত্র ৯১ বলে গড়ে তোলেন ১৬৮ রানের বিশাল জুটি। ৪৫ বলে ৭৪ রান করে ব্যথা পেয়ে মাঠ ছাড়েন মিরাজ। ৫ চার ও ৩ ছক্কায় এ ইনিংস সাজান তিনি। তবে ইনিংসের শেষ বল পর্যন্ত ক্রিজে ছিলেন মুশফিক। ৫৭ বলে ৯৮ রান করে অপরাজিত থাকেন তিনি। এটিই বিপিএলে মুশফিকের সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত ইনিংস। ১২টি চারের সঙ্গে ৩টি বিশাল ছক্কা হাঁকান মুশফিক। চলমান বিপিএলে এর আগে রাজশাহি রয়্যালসের বিপক্ষে ৯৬ রান করে আউট হয়েছিলেন মুশফিক।

কুমিল্লার বোলরারা মুশফিক ও মিরাজের সামনে ছিল অসহায়। শুধু ব্যতিক্রম ছিলেন মুজিব। এ আফগান স্পিনার ৪ ওভারে মাত্র ১৮ রানের বিনিময়ে ১ উইকেট তুলে নেন। ইফরান ১ উইকেট পেলেও ৩ ওভারে রান দেন ৩৪। বাকিদের মধ্যে সৌম্য সরকার ৪ ওভারে ৩০ রান দিয়ে থাকেন উইকেট শূন্য।

বিশাল লক্ষ্যে খেলতে নামা কুমিল্লা দলীয় ১ রানেই প্রথম উইকেট হারায়। নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হরাতে থাকা দলটি ৩২ রানেই হারিয়ে ফেলে তিনটি উইকেট। শেষ পর্যন্ত ৯ উইকেটে ১২৬ রানে থামে তাদের ইনিংস। দলের পক্ষে ইনিংস সর্বোচ্চ ৩২ রান করেছেন উপুল থারাঙ্গা। ২২ রান করেছেন ফারদিন হাসান। ২০ রান এসেছে ইয়াসির আলীর ব্যাট থেকে। বলার মতো রান পাননি অন্য কোনো ব্যাটসম্যান।

খুলনার হয়ে শহীদুল ইসলাম ৩টি, আমির খান ও আমিনুল ইসলাম ২টি করে উইকেট লাভ করেন।

এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/ডেস্ক/০০