চোখে রঙিন স্বপ্ন শ্রীমঙ্গলের ফুটবলার সুফিলের, এক লাফে বিপিএল-এ

অর্নিবান সেনগুপ্ত প্রিতম: মাত্রই উনিশে পা দিয়েছেন মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলের কিশোর ফুটবলার আবু সুফিয়ান সুফিল। শ্রীমঙ্গলের ফুটবল কোচ ইকরাম রানার হাত ধরে ফুটবলে আসা এই তরুণ ফুটবলার এক লাফে চলে গেছেন বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ ফুটবলে। তৃতীয় বিভাগ ফুটবল লিগ থেকে সরসারি চলে গেছেন দেশের ফুটবলের সর্বোচ্চ আসরে। তাই এখন চোখে রঙিন স্বপ্ন।

সুফিল ঢাকায় তৃতীয় বিভাগ ফুটবল লিগ খেলে ছিলেন গত মার্চে। এরপর বছর ঘুরতে না ঘুরতেই সুযোগ পেয়েছেন বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ ফুটবলে। তৃতীয় বিভাগ ফুটবল লিগের পর দ্বিতীয় বিভাগ ফুটবল লিগ, প্রথম বিভাগ ফুটবল বা চ্যাম্পিয়নশিপের কোনটাই তাকে খেলতে হয়নি। অথচ এসব টুর্ণামেন্টে নিজেকে প্রমাণ না করলে কোন ফুটবলারই প্রিমিয়ার লিগে তেমন একটা সুযোগ পান না।

সুফিল অবশ্য তৃতীয় বিভাগ ফুটবল লিগে নিজের প্রতিভা দেখিয়ে গেছেন। দিলকুশা ক্লাবের হয়ে তৃতীয় বিভাগ খেলেছেন। দলকে করিয়েছেন চ্যাম্পিয়ন। নিজে হয়েছেন টুর্ণামেন্টে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ গোলদাতা।

দিলকুশা ক্লাবের হয়ে সবগুলো ম্যাচ খেলে প্রতিপক্ষের জালে ৯ বার বল জড়িয়েছেন তিনি। যার পুরস্কার পেয়েছে গেছেন একলাপে বিপিএলে চলে গিয়ে। তৃতীয় বিভাগর পর প্রথম, দ্বিতীয় বা চ্যাম্পিয়নশিপের কোনটাই খেলতে হয়নি শ্রীমঙ্গলের তরুণ এই ফুটলারের।

তার হাতেখড়িটা শুরু হয়েছে ফুটবল একাডেমি শ্রীমঙ্গল দিয়ে। পাড়ার কোন এক মিনিবার ফুটবল টুর্ণামেন্টে খেলছিলেন সুফিল। উপস্থিত দর্শকদের মাতিয়ে রাখ ছিলেন নিজের পায়ের জাদু দিয়ে। বাদ যাননি, জাতীয় দলের সাবেক ফুটবলার ইকরাম রানাও। সেদিন সুফিলের পারফর্ম চোখে পড়েছিলো শ্রীমঙ্গল ফুটবল একাডেমির এই কোচের।

রত্মটাকে ঠিক চিনে নিতে পারছিলেন ইকরাম রানা। সুফিলকে নিয়ে এসে ভর্তি করান তার নিজের একাডেমিতে। এরপর কেবল এগিয়ে যাওয়ার গল্প। আর পেছনে ফিরে তাঁকাতে হয়নি সুফিলের। মৌলভীবাজার জেলা দলে খেলেছেন, এয়ারটেল রাইজিং স্টারসের হয়ে ঘুরে এসেছেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড।

সম্প্রতি সিলেটে অনুষ্ঠিত সিলেট বিভাগীয় কমিশনার কাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টে খেলেছেন মৌলভীবাজার জেলা দলের হয়ে। খেলেছেন চিটাগাং প্রিমিয়ার লিগে।

আরামবাগ ক্লাবের হয়ে বিপিএলে সুফিল খেলছেন। এরই মধ্যে বিপিএলে ১৫টি ম্যাচ খেলেছে তার দল। ১৫ ম্যাচের ১১ টিতেই কোচ সাইফুল বারীর সেরা একাদশে খেলেছেন তিনি।

প্রিমিয়ার লিগে আরামবাগও আছে বেশ ভালো অবস্থানে।লিগে ১৫ ম্যাচে ২০ পয়েন্ট অর্জন করেছে দলটি। ১২ দলের বিপিএলে পয়েন্ট টেবিলে তাদের অবস্থান ছয়ে। মুক্তিযোদ্ধা, শেখ রাসেল, মোহামেডানের বিগ বাজেটের দলগুলোকে পিছনে ফেলেছে পয়েন্ট টেবিলে।

প্রিমিয়ার লিগ খেলতে চট্টগ্রামেই আছেন। সেখান থেকেই মুঠোফোনে কথা বলেছেন এসএনপিস্পোর্টসের সঙ্গে। জানিয়েছেন তার স্বপ্নের কথা।

সুফিল বলেন, ভালো লাগছে বিপিএল খেলতে পারছি। দেশের সর্বোচ্চ এই টুর্ণামেন্টটিতে খেলে এবার যেতে চাই জাতীয় দলে। জানি কাজটা খুব কঠীন হবে। তবে নিজেকে প্রমাণ করেই যাবো ইনশাআল্লাহ। এজন্য সকলের দোয়া চাই।

শ্রীমঙ্গলের পশ্চিম ভারাউড়া গ্রামের জরতিপ মিয়া ও নগরুন নেছার ছেলে সুফিল  চার ভাই এক বোনের সংসারে সবার ছোট।

এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/০০