চ্যাম্পিয়ন হয়ে এক দল উঠলো বিপিএলে, আরেক দল আটকে গেলো তদন্তে

স্পোর্টস ডেস্ক:: বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ ফুটবলে চ্যাম্পিয়নশিপ থেকে দু’টি দল উঠে আসবে। নিয়ম অনুযায়ী চ্যাম্পিয়নশিপ লিগের চ্যাম্পিয়ন এবং রানার্সআপ দল বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (ফুটবল বিপিএল) এ উঠবে। বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়নশিপে সর্বোচ্চ পয়েন্ট নিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে ফর্টিস ক্লাব।

আগামি বছর প্রিমিয়ার লিগে খেলবে ফর্টিস। তাদের হাতে চ্যাম্পিয়ন শিরোপাও তুলে দেওয়া হয়েছে। তবে রানার্সআপ হওয়া উত্তরার আজমপুর ফুটবল ক্লাব পায়নি রানার্সআপ ট্রফি। তাদের বিপিএলে উঠা আটকে আছে তদন্তে। ক্লাবটির বিপক্ষে ম্যাচ পাতানোর অভিযোগ উঠেছে।

বাফুফে আজমপুর ক্লাবের বিরুদ্ধে উঠা ম্যাচ পাতানোর অভিযোগের তদন্ত করছে। তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত তাই ক্লাবটিকে রানার্সআপ ঘোষণা করা হচ্ছে না। তদন্তে দোষী প্রমাণিত হলে ক্লাবটি নিষিদ্ধ হবে। সেক্ষেত্রে তিনে থাকা নোফেল স্পোটিং ক্লাবের ভাগ্য খুলে যাবে। দলটি উঠে যাবে বিপিএলে।

চ্যাম্পিযনশিপে ২২ ম্যাচে ১৩ জয়, ৮ ড্র এবং এক হারে ফর্টিসের পয়েন্ট ৪৭। তাদের পরে ৩৯ পয়েন্ট নিয়েই দ্বিতীয় স্থানে আছে আজমপুর। তিনে থাকা নোফেল স্পোটিং ক্লাবের পয়েন্ট ৩৮। ফলে আজমপুর ম্যাচ পাতানোর অপরাধে নিষিদ্ধ হলে কপাল খুলবে নোফেলের।

আজমপুরের রানার্সআপের সিদ্ধান্ত নিয়ে বাফুফের সিনিয়র সহ সভাপতি ও প্রফেশনাল লিগ কমিটির চেয়ারম্যান আবদুস সালাম মুর্শেদী সাংবাদিকদের বলেন, ‘ক্লাবটির বিরুদ্ধে পাতানো খেলার যে অভিযোগ উঠেছে, তার তদন্ত চলছে। তদন্ত চলমান অবস্থান তাদের বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া সম্ভব হবে না। আশা করি এই মাসের মধ্যেই পাতানো ম্যাচ শনাক্তকরণ কমিটি একটা রিপোর্ট দেবে। সেই রিপোর্টের পরই আমরা রানার্সআপ দল ঘোষণা করবো।’

এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/ডেস্ক/০০