জুলফিকারঃ জীবন চালাতে যিনি ক্রিকেটকে অনুপ্রেরণার বৃত্ত মানেন

ছবিঃ দ্য এক্সপ্রেস ট্রিবিউন।

আশিক উদ্দিনঃ জীবন যুদ্ধে হার না মানা মানুষদের গল্পগুলো অনুপ্রেরণার। সামনে যত বাধাই আসুক একজন হার না মানা মনোভাবের মানুষ সব তুচ্ছ করে সাফল্যের দিকে এগিয়ে যায়। এই মনোভাব গড়ে তোলার জন্য প্রয়োজন দারুণ আত্মবিশ্বাস আর অনুপ্রেরণা। একজন মানুষের মাঝে যদি হার না মানা ব্যক্তিত্ব একবার সৃষ্টি হয়, তবে তার কাছে কিছুই অসম্ভব মনে হয় না।

মানুষের যদি নিজেকে নিয়ে সন্দেহ থাকে, বা নিজের লক্ষ্যটিকে খুব বেশি বড় মনে হয়, তবে এটা মনে রাখা উচিৎ যে বিশ্বাস করতে পারে সে অর্জন করতে পারে। মানুষ যখন জীবন যুদ্ধে ধাক্কা খায়, যখন ভাবে এই বুঝি আমার জীবন; আমার ভবিষ্যত অন্ধকার হয়ে গেলো তখনই অনুপ্রেরণা খুঁজতে পারে পাকিস্তানের খাইবার পাক্তনখোয়া প্রদেশের জুলফিকার খানের পথচলায়। দু’পা ছাড়াই জন্ম হয় জুলফিকারের। কিন্তু তিনি দমে যাওয়ার পাত্র নন। লড়াই শুরু করেছিলেন, করে যাচ্ছেন। ডিপ্লোমা ইন ইঞ্জিনিয়ারিং নিয়ে পড়াশোনার পাশাপাশি ক্রিকেটকে মেনেছেন অনুপ্রেরণার বৃত্ত। দু’পা ছাড়াই পেস বোলিং করতে পারেন বেশ ভালোমত। খাইবার পাক্তনখোয়া প্রদেশের এই ক্রিকেটারের দল তাঁর প্রদেশের অঞ্চলভিত্তিক চ্যাম্পিয়ন।

পা ছাড়াই জুলফিকারের কাছে জীবনটা অনিন্দসুন্দর। পড়াশোনার পাশাপাশি ক্রিকেট, প্রবল আত্মমর্যাদা সম্পন্ন এই মানুষ নিজের রুটি-রুজির জন্য চালান ছোটখাটো একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানও। তবে তাঁর এই যাত্রা মোটেও সুখকর ছিল না। ‘খেলা’ রক্তে মিশে থাকায় শুরুটা করেন ক্রিকেট দিয়ে। কিন্তু জুলফিকারের পাশে নিন্দুকদের কথার বাণী ছিল অফুরন্ত। শুরুর দিকে নিন্দুকদের বক্তব্য, পা ছাড়া ক্রিকেট খেলবে কেমনে? জুলফিকার ওদের কথা কানে নেন নি। এগিয়ে গেছেন নিজের লক্ষ্যে।

শহিদ আফ্রিদির ভক্ত জুলফিকার শুধু ক্রিকেট নিয়ে পড়ে থাকেন নি। জিমন্যাস্টিকেও বেশ পটু। ভারোত্তলে ৯০ কেজির মত ওজন তুলতে পারেন। তবে সবকিছু ছাপিয়ে ক্রিকেটই তাঁর ধ্যানজ্ঞান। এজন্য জুলফিকার একটি ক্রিকেট একাডেমি করতে চান। পরিবারের বোঝা না হয়ে জুলফিকার এখন বাবামায়ের গর্বের সন্তান।

যে বিশ্বাস করে সে-ই বেঁচে থাকে। এই বিশ্বাস এবং কাজের মধ্যে যে ডুবে যেতে পেরেছে তাকে কোন দুঃখ, মালিন্য স্পর্শ করতে পারে না। কাজের নিজস্ব আনন্দ রয়েছে। কাজের মধ্যে ডুবে যেতে হলে স্বপ্নের প্রয়োজন। জুলফিকার স্বপ্ন দেখেছেন, এবং সেটাকে বাস্তবে রূপ দিয়েছেন। স্রষ্টার সৃষ্টি জুলফিকার এখন হাজারো মানুষকে স্বপ্ন দেখান। আপনার হয়ত এটা নেই, ওটা নেই। এজন্য আফসোস করে ভেড়ান, কিন্তু জুলফিকার পা দু’টো ছাড়া একটি জলজ্যান্ত অনুপ্রেরণার নাম!

এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/১১০