টেকনিক্যালি সাউন্ড এমন খেলোয়াড় খুব বেশি আমাদের নেই- অধিনায়ক সাকিব

স্পোর্টস ডেস্ক:: মাত্রই তৃতীয় দফা বাংলাদেশের টেস্ট অধিনায়কের দায়িত্ব নিয়েছেন সাকিব আল হাসান। দায়িত্ব নিয়েই ব্যাটারদের সমালোচনা মুখর হয়েছেন তিনি। জানিয়েছেন, প্রত্যেকের কাজ যার যার করতে হবে। রান বের করার উপায় ব্যাটারদেরই খুঁজতে হবে।

অ্যান্টিগা টেস্টে ব্যাটারদের ব্যর্থতায় ৭ উইকেটে বড় হারের পরই বাংলাদেশ অধিনায়ক ব্যাটারদের সমালোচনা করেছেন। জানিয়েছেন, টেকনিক্যালি সাউন্ড এমন খেলোয়াড় খুব বেশি খেলোয়াড় আছে, তা মনে হয় না তার কাছে। দলের সবারই টেকনিক্যালি সমস্যা আছে বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি।

বাংলাদেশের টেস্ট অধিনায়কের তৃতীয় দফা যাত্রাটা বেশ সুখকর হয়নি। অ্যান্টিগা টেস্টে ব্যাটারদের চরম ব্যর্থতায় বাংলাদেশ হেরেছে ৭ উইকেটের বড় ব্যবধানে। দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজে স্বাগতিক ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেলো। প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের করা ১০৩ রানের জবাবে স্বাগতিক উইন্ডিজ নিজেদের প্রথম ইনিংসে করে ২৬৫ রান। নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে বাংলাদেশ অলআউট হয় ২৪৫ রানে। ৮৮ রানের টার্গেট তিন উইকেট হারিয়ে টপকে যায় ব্র্যাথওয়েটের দল।

পরপর দুই ইনিংসেই বাংলাদেশকে টেনেছেন অধিনায়ক সাকিব। দুই ইনিংসের ফিফটি করেছেন তিনি। ধ্বংস স্তুপে দাঁড়িয়ে করা তার ফিফটিতেই প্রথম ইনিংসে শতক পার স্কোর পায় টাইগাররা। দ্বিতীয় ইনিংসেও তিনি বাংলাদেশকে টেনেছেন। সোহানকে নিয়ে সপ্তম উইকেটে ১২৩ রানের জুটি গড়েন। দু’জনেই হাফ সেঞ্চুরি করে ফিরে গেলে বাংলাদেশ থেমে যায় দ্রুত। বড় হার নিয়ে তাই মাঠ ছাড়তে হয়েছে।

ব্যাটারদের এমন বাজে পারফর্মের পরই সাকিব জানালেন, দলের সবারই টেকনিক্যাল সমস্যা আছে। টেকনিক্যালি সাউন্ড তেমন খেলোয়াড় নেই। তিনি বলেন, ‘টেকনিক্যালিও অনেক সমস্যা আছে। টেকনিক্যালি সাউন্ড এমন খেলোয়াড় খুব বেশি আছে আমাদের, তা মনে হয় না। আমাদের দলের যারা আছে সবারই টেকনিক্যাল সমস্যা আছে। কিন্তুু তাদের উপায় খুঁজে বের করতে হবে কীভাবে রান করতে হবে, ক্রিকেট থাকতে হবে।’

ব্যাটারদের সমালোচনা করেছেন সাকিব আল হাসান। জানিয়েছেন, ব্যাটারদের নিজেদের রান বের করার উপায় খুঁজতে হবে। যার যার দায়িত্ব, তাকেই পালন করতে হবে। বাংলাদেশের ব্যাটারদের টেকনিক্যাল সমস্যাও আছে বলে জানিয়েছেন সাদা পোশাকের দলপতি।

ব্যাটারদের নিজেদের সমস্যা খুঁজতে হবে, কোচের সঙ্গে আলোচনা করতে হবে। অধিনায়কের এখানে কিছুই করার নেই। তার দায়িত্ব মাঠে নেতৃত্ব দেওয়া। অধিনায়কতো আর কোচিং করাতে পারেন না জানিয়ে সাকিব আল হাসান বলেন, ”এটা তো আসলে আমার খুব বেশি আলোচনার বিষয় না। কোচেরই আলোচনা করার বিষয়। এখন আমি যিদ কোচিংও করি, অধিনায়কত্বও করি তাহলে তো সমস্যা। আমার কাজ যতটুকু থাকা আমার মনে হয় ভালো। আমার দায়িত্ব যতটুকু, ততটুকু পালন করার চেষ্টা করবো। বাকি যার যে কাজ তা তাদের জায়গা থেকে করলে সবার জন্য কাজটা সহজ হবে।’

এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/ডেস্ক/০০