তিন মাস পর খেলতে নেমেছেন তামিম, দেখে মনেই হয়নি ইমরুলের

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ প্রতিযোগীতামূলক ক্রিকেটে সবশেষ গেল বছরের অক্টোবরের শুরুর দিকে খেলেছিলেন তামিম ইকবাল। নেপালের এভারেস্ট প্রিমিয়ার লিগের (ইপিএল) পর তিন মাস পেরিয়ে গেলেও, আর কোনো প্রতিযোগীতামূলক ক্রিকেটে দেখা যায়নি তামিমকে। এছাড়া আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলেছেন, প্রায় ছয় মাস হতে যাচ্ছে।

এই সময়টায় চোট নিয়ে লড়াই করতে হয়েছে তামিমকে। বাংলাদেশ ওয়ানডে অধিনায়ক সম্প্রতি ক্রিকেটে ফিরেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগের (বিসিএল) ওয়ানডে ফরম্যাট দিয়ে। যেটার নাম কিনা দেওয়া হয়েছে ইন্ডিপেন্ডেন্স কাপ বা স্বাধীনতা কাপ। আসরে দুটি ম্যাচ খেলেছেন তামিম। দীর্ঘদিন পর মাঠে নেমে প্রথম ম্যাচে খুব একটা সুবিধা করতে পারেননি। করেছেন মাত্র ৯ রান।

তবে দ্বিতীয় ম্যাচে আজ খেলেছেন ৩৫ রানের ইনিংস। ব্যাটিংয়ে সাবলীল ছিলেন তিনি। বেশ উড়ন্ত শুরু এনে দিয়েছিলেন দলকে। গ্রিন গ্যালারির স্টেডিয়ামের পাশে থাকা ছোট টিলার ওপর দাঁড়িয়ে গুটি কয়েক খুদে দর্শকের চিৎকারের সাথে তামিমের ব্যাটিং, বেশ মাতিয়ে তুলেছিল সিলেটের নয়নাভিরাম মাঠের আবহকে। তবে তামিমকে ফিফটি পূরণ করতে দেননি প্রতিপক্ষ নর্থ জোনের সবচেয়ে বড় তারকা মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

৩৮ বলে ৩ বাউন্ডারি ও ১ ছক্কায় খেলা বাংলাদেশের ওয়ানডে অধিনায়কের ইনিংসের লাগাম টেনে ধরেন তিনি। টাইগারদের টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক নিজের অফ-স্পিন ফাঁদে বোল্ডআউট করেন তামিমকে। আর এতেই আশাহত হয়ে বাঁহাতি ব্যাটার পথ ধরেন ড্রেসিং রুমের। ইমরুল কায়েসের সাথে তামিমের ৫৩ রানের জুটি ভেঙে যায়।

গ্রুপ পর্বে আজ শেষ ম্যাচ খেলতে নেমেছিল ইসলামী ব্যাংক ইস্ট জোন। সেই ম্যাচে মাহমুদউল্লাহর নর্থ জোনকে হারিয়েছে ইস্ট জোন। যদিও জয়টি শেষ পর্যন্ত স্বান্তনারই থেকে যায়। কেননা ফাইনালে খেলা হচ্ছে না তাদের। সেই ম্যাচে ৭১ রানের ইনিংস খেলে জয়ের নায়ক ইমরুল কায়েস। ইস্ট জোনের অধিনায়ক পরবর্তীতে মুখোমুখি গণমাধ্যমের।

যেখানে ইমরুলের কাছে তামিমের ব্যাটিং নিয়ে জানতে চাওয়া হয়। সেসময় তিনি জানান, ব্যাটিংয়ের সময় তামিমকে দেখে মনেই হয়নি এতদিন পর খেলতে নেমেছেন। শুরুটা ছিল ভালো। পছন্দের জায়গায় করেছেন দারুণ টাইমিংও। এছাড়া পরিকল্পনামাফিক খেলেছেন দলের।

এই প্রসঙ্গে ইমরুল কায়েস বলেন, ‘তাকে দেখে মনে হয়নি, চার মাস (৩ মাসের বেশি সময়) ব্যাটিং করেনি বা ম্যাচে নাই। আজকে তার ফ্লো খুব ভালো ছিল ব্যাটিংয়ে, শুরুটা ভালো করেছে। যেসব জায়গায় শটস খেলতে পছন্দ করে, সেসব জায়গায় খুব সুন্দর করে টাইমিং করেছে। সব মিলিয়ে ও যতক্ষণ খেলেছে, খুব ইতিবাচকভাবে ব্যাট করেছে। আমাদের সবচেয়ে বড় যে জিনিস, যেভাবে আমরা ড্রেসিং রুমে মাইন্ড সেটআপের কথা বলেছিলাম, যে পরিকল্পনা নিয়ে খেলতে হবে, তামিম ঠিক সেটাই মাঠে গিয়ে প্রয়োগ করেছে।’

এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/সা