দুই দেশে ১৪ দিনই কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে বাংলাদেশকে

স্পোর্টস ডেস্কঃ বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ৩টি টেস্ট ম্যাচ খেলতে আগামী ২৭ সেপ্টেম্বর শ্রীলঙ্কা সফরে যাওয়ার কথা বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের। যার সুবাদে ইতোমধ্যে অনুশীলন শুরু করেছে টাইগাররা। প্রথম ধাপে ক্রিকেটারদের হয়ে গেছে করোনা পরীক্ষাও। কোভিড-১৯ আরো দুটি পরীক্ষা শেষ করে লঙ্কান বিমানে উঠার কথা ছিল টাইগারদের। কিন্তু কোয়ারেন্টাইন নিয়ে বিরোধের কারণে এই সিরিজের ভাগ্য এখনো নির্ধারণ হয় নি। টেস্ট সিরিজ নিয়ে এখনও আনুষ্ঠানিক সূচি প্রকাশ করেনি শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড। তারা শর্ত বেধে দিয়েছিল, সফরে গিয়ে বাংলাদেশ দলকে ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। যদিও বিসিবি স্পষ্ট জানিয়ে দেয় ১৪ দিন নয়, ৭ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকবে টাইগার ক্রিকেটাররা।

এমন অচলাবস্থায় গতকাল (১৫ সেপ্টেম্বর) শ্রীলঙ্কার কোভিড-১৯ টাস্কফোর্সের সাথে বৈঠকে বসে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট (এসএলসি)। লঙ্কান স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন শর্ত থেকে কোনভাবেই সরে আসতে চায়না। যে কারণে এসএলসি দুই দেশে ভাগ হয়ে কোয়ারেন্টাইনে থাকার নতুন প্রস্তাব দেয়। অর্থাৎ বাংলাদেশে ৭ দিন এবং শ্রীলঙ্কায় ৭ দিনের জন্য কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে বাংলাদেশ দলকে।

এ প্রসঙ্গে এসএলসির সহ সভাপতি রাভিন বিক্রমারত্নে বলেছেন, ‘গতকাল কোভিড -১৯ টাস্কফোর্সের সাথে আমাদের ইতিবাচক বৈঠক হয়েছে এবং প্রত্যেকেই একমত হয়েছিল যে এই সিরিজটি আমাদের আয়োজন করা উচিত। তবে ডাক্তারদের পরামর্শও আমাদের মেনে নেয়া উচিত।’

এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/ডেস্ক/১১০