নতুন আম্পায়ার নিয়োগ করবে বিসিবি, বাড়ানো হচ্ছে খেলোয়াড়দের শাস্তিও

    0
    115

    স্পোর্টস ডেস্ক:: ঘরোয়া ক্রিকেটে আম্পায়ারিং নিয়ে প্রায়ই প্রশ্ন উঠে। চলমান ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ ক্রিকেটেও আম্পায়ারিং নিয়ে প্রশ্ন উঠছে। মাঠেই ক্ষোভ প্রকাশ করছেন ক্রিকেটাররা। সিনিয়র মাশরাফী থেকে শুরু করে তরুণ ক্রিকেটাররাও প্রকাশ্যে ক্ষোভ ঝাড়ছেন।

    বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) আম্পায়ারদের ভুল হচ্ছে সেটা স্বীকার করছে। সংস্থাটি বলছে, এগুলো ইচ্ছাকৃত ভুল নয়। কাউকে বিশেষ সুবিধা দিতে নয়। অনিচ্ছাকৃত কিছু ভুল ত্রুটি হচ্ছে। সেজন্য নতুন নতুন আম্পায়ার আনার প্রক্রিয়া শুরু হচ্ছে। ক্রিকেট বোর্ড শীঘ্রই বিজ্ঞপ্তি দেবে। পুরুষ-নারী নতুন কিছু আম্পায়ার নিয়োগ দেবে বোর্ড।

    আম্পায়ারদের উন্নত প্রশিক্ষণেও নজর বোর্ডের। ভালো ট্রেনারের মাধ্যমে আম্পায়ারদের প্রশিক্ষণও দেওয়া হবে। ক্রিকেট বোর্ডের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, খেলোয়াড়রা অতিরিক্ত রিয়্যাক্ট করছেন। যা মোটেই ভালো নয়। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে সামান্য প্রতিক্রিয়া প্রকাশ করলেই শাস্তি পেতে হয়। সে হিসেবে ঘরোয়া ক্রিকেটে খুব বড় শাস্তি নেই।

    বোর্ডের পরিচালক ও আম্পায়ার্স কমিটির চেয়ারম্যান ইফতেখার রহমান মিঠু তাই জানিয়েছেন, ভবিষ্যতে খেলোয়াড়ের শাস্তির পরিমাণও বাড়ানো হবে। চলমান লিগে আম্পায়ারের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করে শাস্তি পেয়েছেন মিরাজ। ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। বিদ্যমান আইনে এটাই সর্বোচ্চ শাস্তি। ভবিষ্যতে তাই শাস্তি বাড়ানো হবে আইনে।

    আম্পায়ারিং ভুল হচ্ছে জানিয়ে বিসিবির পরিচালক ও আম্পায়ার্স কমিটির চেয়ারম্যান ইফতেখার রহমান মিঠু সাংবাদিকদের বলেন ‘আমি শতভাগ নিশ্চয়তা দিয়ে বলতে পারি এগুলো ভুল। ইচ্ছেকৃত সিদ্ধান্ত নয়।’

    নতুন আম্পায়ার নিয়োগ হবে জানিয়ে তিনি আরো বলেন, ‘আমাদের নতুন আম্পায়ার আনতে হবে। আমরা পরিকল্পনা করেছি নতুন আম্পায়ারের জন্য। কয়েকদিন পর বিজ্ঞপ্তি যাবে। ছেলে-মেয়ে দুই পক্ষ থেকেই নতুন আম্পায়ার নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু হবে। এটা কিন্তুু একটা প্রক্রিয়া, ওই পরিকল্পনা যাচ্ছে। হাইয়ার ট্রেনিং এইড কী আনা যায়, এটা আমরা চেষ্টা করছি।’

    আস্তে আস্তে শাস্তির পরিমাণ বাড়ছে জানিয়ে মিঠু বলেন, ‘আমরাও যখন খেলতাম প্রেশার-ট্যাকটিস ব্যবহার করতাম। এটা কিন্তুু প্লেয়াররা করবেই। কিন্তু তখনকার নিয়ম ও এখনকার নিয়মে আকাশ-পাতাল ফারাক। আন্তর্জাতিক পর্যায়ে এটা একদম বন্ধ। আপনি কিছু অসন্তোষ প্রকাশ করলেই ম্যাচ ফাইন। আমাদেরও আস্তে আস্তে ওই লেভেলে যাচ্ছে। দেখেন, মিরাজের ঘটনাতেও সর্বোচ্চ জরিমানা করা হয়েছে। আমার মতে এটা প্লেয়ারদের করা উচিত না। বাংলাদেশের প্লেয়ারদেরও আমাদের সাহায্য করা উচিত ক্রিকেটের মান উন্নয়নে।’

    এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/ডেস্ক/০০

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here