নিলামে ‘অবিক্রিত’ পাতিদার নৈপুণ্যে কোয়ালিফায়ারে ব্যাঙ্গালোর

স্পোর্টস ডেস্কঃ ১০ দলের এবারের আইপিএল মেগা নিলামে প্রথমে দল পান নি রজত পাতিদার। টুর্নামেন্ট চলাকালীন সময়ে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের মনে ধরে এই ব্যাটসম্যানকে। তারা দলে নেয় পাতিদারকে। আর এই ব্যাটসম্যানের সেঞ্চুরিতে এলিমিনেটর জিতেছে ব্যাঙ্গালোর।

পাতিদারের ৫৪ বলে ১১২ রানের অপরাজিত ইনিংসে ২০৭ করে ব্যাঙ্গালোর। জবাবে ২০ ওভারে ৬ উইকেটে ১৯৩ রান তুলতেই আটকে গেল লখনৌ সুপার জায়ান্টস। ১৪ রানে হেরে এলিমিনেটরেই থামল তাদের প্রথম মৌসুম। শুক্রবার ফাইনালে যাওয়ার লক্ষ্যে দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ার ম্যাচে রাজস্থান রয়্যালসের মুখোমুখি হবে ফাফ ডু প্লেসি-বিরাট কোহলিরা।

রান তাড়া করতে নেমে দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৭৯ রান করেন লখনৌ অধিনায়ক লোকেশ রাহুল। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৪৫ রান করেন দীপক হুডা। প্রথমে কুইন্টন ডি কক (৬), পরে মানান ভোহরা (১৯) আউট হন। ২৬ বলে ১ চার ও ৪ ছক্কায় ৪৫ রান করে হুডা আউট হন। রাহুল ৫৮ বলে ৩টি চার ও ৫ ছক্কায় ৭৯ রান করেন।

শেষ ওভারে জয়ের জন্য ২৪ রান প্রয়োজন ছিল লখনৌর। কিন্তু হার্ষালের করা ওভারটিতে তারা ৯ রানের বেশি নিতে পারেনি। ব্যাঙ্গালোরের হয়ে ৩ উইকেট নেন জস হ্যাজেলউড। একটি করে উইকেট পান  মোহাম্মদ সিরাজ, ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা ও হার্শাল প্যাটেল।

এর আগে ব্যাঙ্গালোর অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসি লখনৌর বোলার মহসিন খানের বলে গোল্ডেন ডাকে ফিরে যান। বিরাট কোহলি হাল ধরে রাখলেও ২৪ বলে ২৫ রান করে আভেস খানের শিকার হন। গ্লেন ম্যাক্সওয়েল ৯, মহিপাল লমরোর ১৪ রান করে ফিরে গেলে দিনেশ কার্তিকের সঙ্গে ৯২ রানের জুটি গড়েন পাদিতার। ৪৯ বলে সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন তিনি। শেষ পর্যন্ত তার ৫৪ বলে ১১২ রানের ইনিংসে ছিল ১২টি চার ও ৭টি ছয়ের মার।  দিনেশ কার্তিক ২৩ বলে করেন ৩৭ রান।

লখনৌর হয়ে মহসিন ৪ ওভারে ২৫ রানের বিনিময়ে এক উইকেট শিকার করেন তিনি।