বিশ্বকাপের লোকবল কমিয়ে দিচ্ছে আয়োজক কাতার

    স্পোর্টস ডেস্ক:: আগামি ২০২২ ফিফা বিশ্বকাপের আয়োজক দেশ কাতার। করোনাভাইরাসের প্রকোপের মধ্যেও দেশটি বিশ্বকাপের প্রস্তুুতি নিচ্ছে। বড় বড় আর দৃষ্টিনন্দন স্টেডিয়ামগুলো তৈরির কাজ পুরোদমেই চালাচ্ছে কাতার।

    কিন্তুু বছর দু’ক আগেই নিতে হচ্ছে ‘কঠিন’ এক সিদ্ধান্ত। করোনার ভাইরাসের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত বিশ্ব অর্থনীতি। অর্থনেতিক সেই মন্দা থেকে বাঁচতে আয়োজক কাতার এখনি পরিকল্পনা শুরু করে দিয়েছে। কমিয়ে দিচ্ছে বিশ্বকাপ আয়োজনের সাথে সংশ্লিষ্ট লোকবল। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম এমন প্রতিবেদন দিয়েছে।

    লোকবল কমিয়ে দেওয়ার বেশ যৌক্তিক কারণও আছে। কোভি উনিশ অনেক কিছুই পরিবর্তন করে দিয়েছে। এক দেশ থেকে আরেক দেশে ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা আসছে। সব কার্যক্রমই শিথিল হয়ে যাচ্ছে। আর্থিক সঙ্কটও তৈরি হচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে বিশ্বকাপ আয়োজন হলেও আগের মতো সাড়া মিলবে না। বিদেশী দর্শকেরা আসবেন না। বিশ্বকাপ থেকে দেশটির আয় কমে যাবে। কাতারের আয়োজক কর্তৃপক্ষ তাই খরচ কমাতে লোকবল কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

    এরই মধ্যে কর্মী ছাঁটাই করেছে বিশ্বকাপের ম্যাচ সম্প্রচারের দায়িত্বে থাকা দোহা ভিত্তিক প্রতিষ্ঠান ‘বিএন স্পোর্টস’। ফিফার পৃষ্টপোষক কাতার এয়ারওয়েজও কর্মী ছাঁটাই করছে। দেশটির সরকার রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানগুলোতে ৩০ শতাংশ বিদেশী শ্রমিক ছাঁটাইয়েও সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

    বিশ্বকাপ আয়োজনের জন্য কাতার ৮টি স্টেডিয়াম তৈরি করছে। এর মধ্যে তিনটি স্টেডিয়ামের নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে। লোকবল ছাঁটাইয়ে এই ইস্যুও কাজ করছে। এক বিবৃবিতে বিশ্বকাপ আয়োজক কমিটি জানিয়েছে, কাতার সরকারের শ্রম আইন অনুযায়ী সকলের পাওনা বুঝিয়ে দিয়েই লোকবল কমানো হচ্ছে।

    এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/ডেস্ক/০০