‘ফেরা ম্যাচে’ হোল্ডার-গ্যাব্রিয়েল শো’তে লণ্ডভণ্ড স্বাগতিকরা

নিজস্ব প্রতিবেদক: ইংল্যান্ড ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যকার টেস্ট দিয়ে প্রায় ৪ মাস পর মাঠে ফেরে ক্রিকেট। এই টেস্টকে ঘিরে নানা জল্পনা-কল্পনা ছিলো। নতুন এক ক্রিকেট দেখার অপেক্ষায় ছিলো বিশ্ব। দর্শক বিহীন মাঠে খেলাসহ নানান নিয়মের ভেড়াজাল ছিলো। সবকিছুর মূল কারণ ছিলো স্বাস্থ্য নিরাপত্তা রক্ষা।

বৃষ্টি বাধায় দেরিতে টস হয়। ৮১ তম টেস্ট অধিনায়ক হিসেবে রোজ বোলে টস করেন বেন স্টোকস ও ক্যারিবীয় কাপ্তান জেসন হোল্ডার। শুরুতে স্টোকসেরই জয়। আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন। ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই উইকেট হারায় ইংলিশরা। আবারও বৃষ্টি হানা দেয়। প্রথম দিনে কোনোমতে ১৭ ওভার খেলা হয়। তখন ম্যাচ অনেকটা ক্যারিবীয়দের অনুকূলে ছিলো।

দ্বিতীয় দিনে ব্যাট করতে নেমে রানের খাতা খোলার আগেই উইকেট হারাতে হয় ইংলিশদের। শ্যানন গ্যাব্রিয়েল রীতিমতো স্বাগতিকদের ত্রাশে পরিণত হন। স্টোকস আগেই বলেছিলেন যে অধিনায়কত্ব তার খেলায় প্রভাব ফেলবে না। ইনিংস সর্বোচ্ছ ৪৩ রান করলেও কেমন জানি অধিনায়কত্বের চাপ ফুটে উঠেছিলো। জস বাটলার দ্বিতীয় সর্বোচ্ছ ৩৫ রানের ইনিংস খেলেন। গ্যাব্রিয়েলের সাথে হোল্ডারও উইকেট শিকারে যোগ দেন। লণ্ডভণ্ড করে দেন ইংলিশ ব্যাটিং দূর্গ। ররি বার্নস ৩০ রান করেন। কেউই তেমন ভাবে প্রতিরোধ গড়তে পারেননি। নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারিয়ে ধুঁকতে থাকে স্টোকসবাহিনী। তাদের ইনিংস থামে ২০৪ রানে।

গ্যাব্রিয়েলের শিকার ৪ উইকেট এবং হোল্ডার ক্যারিয়ার সেরা ৬ উইকেট শিকার করেন।

দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট হাতে নামেন ক্যাম্পবেল ও ব্রাথওয়েত। কঠিন পরিক্ষাই নিচ্ছিলেন এন্ডারসনদের। এন্ডারসনের বলে এলবিডব্লুর ফাদে পরে ৪৩ রানের মাথায় ৩৬ বলে ২৮ রান করে সাজঘরে ফেরেন ক্যাম্পবেল। দিনশেষে ক্যারিবীয়দের সংগ্রহ দাড়ায় ১ উইকেটে ৫৭ রান। উইকেটে ২০ রান করে অপরাজিত আছেন ব্রাথওয়েত অপর প্রান্তে নতুন ক্রিজে নামা শাই হোপের অবস্থান। ৩ রান করে অপরাজিত আছেন তিনি। শুক্রবার তৃতীয় দিনে উড-এন্ডারসনদের তাই এই দুই স্পেশালিষ্টের কাছে কঠিন পরিক্ষা দিতে হতে পারে। এদিনও বৃষ্টি হানা দেয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/ডেস্ক/০০