বাংলাদেশের অনুরোধে পিছিয়ে গেলো ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ

স্পোর্টস ডেস্ক:: ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ মানেই উত্তেজনা। মাঠ এবং মাঠের বাইরে দুই দলের খেলোয়াড় আর সমর্থকদের বাকযুদ্ধ। আগামি ১৬ ডিসেম্বর ঢাকায় তাই ভারত-পাকিস্তানের মাঠের লড়াই দেখার অপেক্ষায় ছিলেন সমর্থকেরা। সেদিন ঢাকায় এশিয়ান হকি ফেডারেশনের টুর্ণামেন্টে মাঠে নামার কথা ছিলো ভারত-পাকিস্তানের।

কিন্তুু ১৬ ডিসেম্বর বাংলাদেশের বিজয় দিবস। রাষ্ট্রীয় গুরুত্বপূর্ণ এ দিনে ঢাকায় ভারত-পাকিস্তান ম্যাচে নিরাপত্তা দেওয়া সম্ভব নয় জানিয়ে বাংলাদেশ এশিয়ান হকি ফেডারেশনের কাছে এদিনের সূচি পরিবর্তনের আবেদন করে। বাংলাদেশ হকি ফেডারেশনের আবেদনের পর এশিয়ান হকি ফেডারেশন ১৬ ডিসেম্বরের ম্যাচগুলো পিছিয়ে দিয়েছে।

একদিন পিছিয়ে ১৬ ডিসেম্বরের পরিবর্তে ১৭ ডিসেম্বর চির প্রতিদ্বন্দ্বী ভারত-পাকিস্তানের ম্যাচ তাই মাঠে দেখার সুযোগ পাবেন ঢাকার দর্শকেরা। হোক না হকি। তবুও তো ভারত-পাকিস্তান লড়াই। ১৪ ডিসেম্বর উদ্বোধনী দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে স্বাগতিক বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ মালয়েশিয়া। ১৭ ডিসেম্বর ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ ছাড়াও বাংলাদেশ মাঠে নামবে দক্ষিণ কোরিয়ার বিপক্ষে।

বাংলাদেশ হকি ফেডারেশন প্রথমবারের মতো এমন বড় টুর্ণামেন্ট আয়োজনের সুযোগ পেয়েছে। এরই মধ্যে প্রস্তুুতি নিতে শুরু করেছেন হকির কর্তারা। এশিয়ার র‍্যাঙ্কিং শীর্ষ ছয় দল সরাসরি খেলে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে। বাংলাদেশ দল স্বাগতিক হওয়াতে খেলছে এবার।

এশিয়ান হকি ফেডারেশন ১৬ ডিসেম্বর টুর্ণামেন্টটি শুরু করে ১৭ ডিসেম্বর সূচি ফাঁকা রেখেছিলো। এখন এক দিন পিছিয়ে সেই ফাঁকা দিয়েই মাঠে গড়াবে হকির চ্যাম্পিয়নশিপ। এদিন ভারত- পাকিস্তান, মালয়েশিয়া-জাপান এবং বাংলাদেশ-কোরিয়া একে অপরের মুখোমুখি হবে।

এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/ডেস্ক/০০