বান্ধবীর সঙ্গে টিকটক ভিডিও করে দল থেকে বাদ পড়লেন ইতালির ফুটবলার

স্পোর্টস ডেস্ক:: সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে টিকটক ভিডিও নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা হচ্ছে। এবার এই টিকটক ভিডিও কাণ্ডে ইতালিয়ান ক্লাব রোমার ফুটবলার মিরকো আনতনুচ্চি দল থেকে বাদ পড়েছেন। রোমা থেকে তিনি ধারে খেলেন পর্তুগিজ ক্লাব ভিতোরিয়া সেতুবালে।

পর্তুগিজ লিগে তার ক্লাব ভিতোরিয়া সেতুবালে ভোয়াবিস্তারের কাছে ৩-১ গোলে পরাজিত হয়। এই ম্যাচের পরপরই তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে টিকটক ভিডিও আপলোড করেন। বান্ধবীকে নিয়ে করা ওই টিকটক ভিডিও তার কাল হয়ে দাঁড়ালো। দলের সবাই যখন পরাজয়ের শোকে স্তব্ধ, এমন পরাজয়ের কারণ খুঁজছিলেন মিরকো আনতনুচ্চি তখন বান্ধবীকে নিয়ে টিকটক ভিডিও বানাতে ব্যস্ত ছিলেন।

ক্লাবের প্রতি তার দায়বদ্ধতা নেই, তাই পরাজয়ের পরও মিরকো আনতনুচ্চি টিকটক ভিডিওতে ব্যস্ত ছিলেন। যার কারণে ভিতোরিয়া সেতুবাল এই ফুটবলারকে দল থেকে বাদ দিয়ে পুরনো ক্লাবে রোমাতে পাঠিয়েছে। রোমা থেকে ধারে তিনি ভিতোরিয়া সেতুবালে খেলতেন। তার সঙ্গে চুক্তি বাতিল করেছে সেতুবাল।

মিরকো আনতনুচ্চিকে দল থেকে বাদ দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে ভিতোরিয়া কোচ হুলিও ভেলাজকুয়েজ বলেন, ‘মিরকো আনতনুচ্চি এখন থেকে আর ভিতোরিয়ার খেলোয়াড় নয়। তার মূল ক্লাব রোমাকেও জানিয়ে দেয়া হয়েছে যে আমাদের মধ্যকার চুক্তি শেষ। আমরা এমন কোন খেলোয়াড়ের ওপর আস্থা রাখি না যে আমাদের সমর্থক এবং ক্লাবের ইতিহাসের প্রতি সম্মান দেখায় না। এই ক্লাবের জার্সি পরা মানে পুরো ২৪ ঘণ্টা ক্লাবের প্রতি দায়বদ্ধ থাকে।’

তাঁকে বাদ দিতে ভিতোরিয়া সেতুবাল কর্তৃপক্ষ একমত হয়েছে জানিয়ে কোচ আরো বলেন, ‘এখানে জটিলতার কিছু নেই। পরিস্থিতিটা খুবই সহজ। ক্লাব, ম্যানেজম্যান্ট, টেকনিক্যাল টিম এবং অন্যান্য স্টাফরা একমত হয়েছে যে, একজন ধারে আসা খেলোয়াড়ের কাছ থেকে আমরা যেমনটা চাই, ঠিক তেমনটা পাইনি। আমাদের সমর্থকরাও এমনটা প্রাপ্য নয়।’

নিজের ভুল বুঝতে পেরে অবশ্য পরবর্তীতে ক্ষমা চেয়েছেন মিরকো। তবে তাতে কোনো কাজ হয়নি। ইনস্টাগ্রামে তিনি ক্ষমা প্রার্থনা করে বলেন, ‘আমি নিজের ভুল বুঝতে পারছি। ক্লাব, সমর্থক, ম্যানেজার এবং আমার সতীর্থ যারা দুঃখ পেয়েছেন, তাদের সবার কাছে ক্ষমা চাচ্ছি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে সরে যাচ্ছি আমি। এখন থেকে আমাকে শুধু সেতুবাল জার্সিতেই ঘাম ঝড়াতে দেখবেন। ভিতোরিয়ার জয় হোক।’

এসএনপিস্পোর্টটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/ডেস্ক/০০