বিদায়ঘণ্টা বাজল দুইবারের চ্যাম্পিয়ন কলকাতার

স্পোর্টস ডেস্কঃ আইপিএলের প্লে-অফের দৌড় থেকে ছিটকে গেল কলকাতা নাইট রাইডার্স। দ্বিতীয় দল হিসেবে প্লে-অফে জায়গা করে নিয়েছে লখনৌ সুপার জায়ান্টস। ১৪ ম্যাচে তাদের সংগ্রহ ১৮ পয়েন্ট। যদিও প্রথম দুইয়ে থাকা নিশ্চিত নয় সুপার জায়ান্টসের। রাজস্থান শেষ ম্যাচে চেন্নাইকে হারালে তারাও পৌঁছে যাবে ১৮ পয়েন্টে। স্যামসনদের নেট রান-রেট ভালো হওয়ায় তারা তখন দ্বিতীয় স্থানে উঠে আসবে।

বুধবার শেষ ওভারের চরম নাটকীয়তায় লখনৌর জয় ২ রানে। ২১১ রানের লক্ষ্য তাড়ায় কলকাতা থমকে যায় ২০৮ রানে। শেষ ওভারে তাদের দরকার ছিল ২১ রান। মার্কাস স্টইনিসের প্রথম বলে রিঙ্কু সিং ৪ ও দ্বিতীয় বলে ছক্কা হাঁকান। তৃতীয় বলেও ছক্কা মারেন তিনি। চতুর্থ বলে ২ রান নিয়ে পঞ্চম বলে আউট হন কলকাতার এই ব্যাটসম্যান। অবিশ্বস্য ক্যাচ ধরেন এভিন লুইস। শেষ বলে ৩ রান দরকার ছিল শ্রেয়াস আইয়ারের দলের। কিন্তু উমেশ যাদবকে বোল্ড করেন স্টইনিস। ২ রানের রোমাঞ্চকর জয় পায় লখনৌ।

রিঙ্কু ২টি চার ও ৪টি ছক্কার সাহায্যে ১৫ বলে ৪০ রান করে মাঠ ছাড়েন। ১ বলে খাতা খুলতে পারেননি উমেশ। নারিন ৩টি ছক্কার সাহায্যে ৭ বলে ২১ রান করে অপরাজিত থাকেন। এর আগে অধিনায়ক আইয়ারের ২৯ বলে ৫০ রানের ইনিংসে ম্যাচে ছিল কলকাতা। ৩ ছক্কা ও ৪ চারে এই ইনিংস সাজান তিনি। নিতিশ রানা খেলেন ২২ বলে ৪২ রানের ইনিংস। স্যাম বিলিংস করেন ২৪ বলে ৩৬ রান। লখনৌর মহসিন ও স্টইনিস ৩টি করে উইকেট দখল করেন।

এর আগে ব্যাট করে ১০টি চার ও ১০টি ছক্কার সাহায্যে ৭০ বলে অপরাজিত ১৪০ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলেন লখনৌর দক্ষিণ আফ্রিকান ব্যাটসম্যান কুইন্টন ডি কক। দারুণ এই ইনিংসের সুবাদে ম্যাচের সেরা ক্রিকেটার নির্বাচিত হন তিনি। তাঁকে দারুণ সঙ্গ দেন অধিনায়ক কেএল রাহুল। ৫০ বলে ৬৮ রানে অপরাজিত থাকেন ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান।

এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/ডেস্ক/১১০