বিশেষ বিমানে উড়িয়ে নিয়ে মুস্তাফিজকে হারের হ্যাটট্রিক দেখালো দিল্লি

0
101

স্পোর্টস ডেস্ক:: রাতে ম্যাচ। সকালে থেকে পুরো একটা বিমান ভাড়া করে মুস্তাফিজুর রহমানকে নিয়ে গেলো দিল্লি ক্যাপিটালস। সবার ধারণে ছিলো তিনি একাদশকে থাকবেন। সেজন্যই হয়তো চার্টাড ফ্লাইটে উড়িয়ে নেওয়া হয়েছে।

কিন্তুু রাতের ম্যাচে দেখা গেলো একাদশতো দূরের কথা, দলের ১৬ জনের তালিকাতেও নেই বাংলাদেশের এই তারকা। প্রথম ম্যাচ হারের পর সমর্থকদের ধারণা ছিলো পরের ম্যাচে খেলবেন ‘কাটার মাস্টার’ খ্যাত এই ক্রিকেটার। কিন্তুু দ্বিতীয় ম্যাচেও উপেক্ষিত থাকলেন তিনি।

দলের তৃতীয় ম্যাচে রাজস্থানের বিপক্ষেও একাদশে জায়গা হয়নি মুস্তাফিজের। ঢাকা থেকে বিশেষ বিমানে উড়িয়ে নিয়ে বাংলাদেশী এই তারকাকে হারের ট্যাটট্রিক দেখালো দিল্লি ক্যাপালিটাস। টানা তিন হার হলো ফ্র্যাঞ্চাইজিটির। শনিবার রাজস্থান রয়্যালসের বিপক্ষে ৫৭ রানের বড় ব্যবধানে হেরেছে ডেভিড ওয়ার্নারের দল। স্কোয়াডে থাকলেও দিল্লি এই ম্যাচে খেলায় নি বাংলাদেশী পেসার মুস্তাফিজুর রহমানকে। নখদন্তহীন বোলিং লাইন পেয়ে রাজস্থান চড়াও হয় দিল্লির উপর। আগে ব্যাট করে ১৯৯ রান করে সাবেক চ্যাম্পিয়নরা। রান তাড়ায় ভয়ঙ্কর বাজে শুরু হয় দিল্লির। শেষ পর্যন্ত হার মানে বড় ব্যবধানে।

২০০ রানের জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নেমে ট্রেন্ট বোল্টের আগুন বোলিংয়ের সামনে রান করার আগেই জোড়া উইকেট হারায় দিল্লি। ইমপ্যাক্ট প্লেয়ার হিসেবে নামা ওপেনার পৃথ্বী শ ফিরেন রানের খাতা খোলার আগেই। পরের বলে লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়ে বিদায় নেন মনীষ পান্ডেও। শূন্য রানে ২ উইকেট চাপে পড়া দিল্লির আরো বিপদ বাড়ান রাইলি রুশো। ব্যক্তিগত ১৪ রানে ফিরে যান দক্ষিণ আফ্রিকান এই ব্যাটার।

এরপর ললিত যাদবকে সঙ্গে নিয়ে লড়াই চালান অধিনায়ক ওয়ার্নার। ৬৪ রানের এক জুটি গড়েন তারা। তবে এই জুটি ভাঙে ২৪ বলে ৩৮ রান করা ললিতের বিদায়ে। দ্রুত বিদায় নেন অক্ষর প্যাটেল ও রোভম্যান পাওয়েল। ৪৪ বলে ফিফটির দেখা পাওয়া ওয়ার্নারের ৬৫ রানের ইনিংস শুধু হারের ব্যবধান কমিয়েছে। শেষ পর্যন্ত দিল্লির ইনিংস থামে ১৪২ রানে। ওয়ার্নার ৫৫ বলে ৭ চারে ৬৫ রানের ইনিংস খেলেন।

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ওপেনিংয়েই বড় জুটি গড়েন দুই ওপেনার জস বাটলার ও ইয়াসভি জয়সওয়াল। তার দুজনে যোগ করেন ৯৮ রান। হাফ সেঞ্চুরি তুলে নিয়ে ৩১ বলে ৬০ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে আউট হয়েছেন জয়সওয়াল। এরপর অধিনায়ক সাঞ্জু স্যামসন ফিরেছেন শূন্য রান করে। রায়ান পরাগ আউট হয়েছেন ৭ রান করে।

একপ্রান্ত আগলে রেখে রাজস্থানের রান বাড়িয়েছেন বাটলার। তিনি ৫১ বলে ৭৯ রানের ইনিংস খেলেছেন। শেষদিকে শিমরন হেটমায়ারের ২১ বলে ৩৯ রানে ভর বড় সংগ্রহ দাঁড় করায় রাজস্থান। ধ্রুব জুরেল ৮ রান করে অপরাজিত ছিলেন শেষ পর্যন্ত। দিল্লি ক্যাপিটালসের হয়ে ২টি উইকেট নিয়েছেন মুকেশ কুমার। আর একটি করে উইকেট পেয়েছেন কুলদীপ যাদব ও রভম্যান পাওয়েল। এদিন দিল্লির প্রায় সব বোলারই ছিলেন খরুচে।

এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/ডেস্ক/০০

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here