বিশ্বকাপ পরিকল্পনায় আছেন মাহমুদউল্লাহ

0
95

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছেন, অধিনায়কত্ব ছাড়ার পর টি-টোয়েন্টি দলেও নেই। খেলতে পারেননি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপও। সাম্প্রতিক ফর্মটাও খুব একটা ভালো নয়। সব মিলিয়ে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের অবস্থানটা বেশ নড়বড়ে হয়ে উঠেছিল।

সেই জায়গায় নতুন দুঃসংবাদ হয়ে দাঁড়ায় ওয়ানডে দল থেকেও বাদ পড়েছেন। আয়ারল্যান্ড সিরিজের জন্য ঘোষিত ওয়ানডে দলে রাখা হয়নি মাহমুদউল্লাহকে। কেন রাখা হয়নি, এর একটা ইঙ্গিত আগেই দিয়েছিলেন খোদ বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। পরবর্তীতে বাংলাদেশ দলের নির্বাচকরাও কারণ ব্যাখ্যা করেছেন।

তাদের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে মাহমুদউল্লাহকে। ব্যাকআপ ক্রিকেটারদের নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালাতে। তবে বিশ্রাম দেওয়া হলেও, পরবর্তীতে কোনো সিরিজে রাখা হবে কিনা, সেটি স্পষ্ট করা হয়নি। আপাতত মাহমুদউল্লাহর ভবিষ্যত নিয়ে কিছু ভাবেননি তারা। বিশ্রাম দেওয়া হলেও, বিশ্বকাপে বাদ দেওয়ার পরিকল্পনাও আছে এমন গুঞ্জন আছে। বিশেষ করে যদি ব্যাকআপ ক্রিকেটাররা ভালো করে তাহলে।

তবে বাংলাদেশ দলের প্রধান কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে জানিয়েছেন, মাহমুদউল্লাহকে এখনই বাদ দিয়ে দিচ্ছেন না তারা। বিশ্বকাপের পরিকল্পনায় তিনি আছেন। শুধুমাত্র বিশ্বকাপের জন্য খেলোয়াড়দের পুলটা বড় করতে চান। পর্যাপ্ত ব্যকআপ ক্রিকেটার রাখতে চান।

হাথুরুসিংহে বলেন, ‘আমরা বিশ্বকাপের আগে খেলোয়াড়দের পুল বড় করতে চাচ্ছি, বিশ্বকাপের আগে কিছু ঘটলে আমাদের কাছে যেন যথেষ্ট খেলোয়াড় থাকে। যাদেরকে কিনা নির্দিষ্টভাবে কাজ করতে বা ভূমিকা পালন করতে দেখেছি। বিশ্বকাপের আগে মাত্র ১৫টি ম্যাচ আছে, তাই আমাদের তাড়াহুড়ো করতে হয়েছে। যারা ভূমিকাটা পালন করতে পারবে, তাদেরকে সুযোগ দেওয়ার চেষ্টা করছি। রিয়াদ এখনও বিবেচনায় আছে। রিয়াদ যথেষ্ট করেছে। তার অনেক অভিজ্ঞতা। আমরা জানি, সে কী করতে পারে।’

লঙ্কান এই কোচ আরও বলেন, ‘আন্তর্জাতিক মানের অন্য খেলোয়াড়দেরকে তুলে আনতে চাই। এটা শুধুমাত্র স্কিলের বিষয় নয়। এই পর্যায়ে তাদের সেই ভূমিকা পালন করার সামর্থ্য আছে কিনা, সেটি দেখার বিষয়। এর মানে এই নয় যে কেউ ভালো পারফর্ম করলে মাহমুদউল্লাহর সময় শেষ। সে আমাদের পরিকল্পনায় এখনও আছে।’

এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/সা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here