বিশ্বকাপ ফুটবল আর ভারত সিরিজে পেছাচ্ছে বিপিএল!

0
59

নিজস্ব প্রতিবেদক:: বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) বিপিএল চলতি বছরের শেষ দিকে আয়োজন করতে চেয়েছিলো। প্রতি মৌসুমেই বছরের শেষ দিকে বিপিএল আয়োজন হয়ে থাকে মূলত। তবে সবশেষ বিপিএল মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে বছরের শুরুতে করতে হয়েছিলো বিসিবিকে।

গত বিপিএল ২১ জানুয়ারি শুরু হয়ে ১৮ ফেব্রুয়ারি শেষ হয়েছিলো। অষ্টম বিপিএল শেষের সময়ই বিসিবি জানিয়েছিলো নবম বিপিএল আয়োজন হবে আগামি নভেম্বর-ডিসেম্বরে। বিপিএল সূচি টিক রাখতেই এক বছরেই দুই বিপিএল আয়োজনের কথা জানিয়ে ছিলো বোর্ড।

কিন্তুু এবার আর সে পথে এগুচ্ছে না বিসিবি। আগামি নবম বিপিএল পিছিয়ে যাচ্ছে কাতার ফিফা বিশ্বকাপ ও ভারতের বাংলাদেশ সফরের কারণে। আগামি ২১ নভেম্বর শুরু হবে ফিফা বিশ্বকাপ। শেষ হবে ১৮ ডিসেম্বর। স্বাভাবিক ভাবেই এই সময়ে বিশ্ব মেতে ফুটবলানন্দে। বিশ্ব মতোয়ারা থাকবে ফুটবল নিয়ে।

বিশেষ করে বাংলাদেশের ফুটবল বিশ্বকাপের আনন্দটা একটু বেশিই। যদিও বাংলাদেশ দলের খেলার সুযোগ থাকে না, তবুও বাংলাদেশীরা ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা ভাগ হয়ে মেতে উঠেন বিশ্বকাপ আনন্দে। ফলে এই সময়ে বিপিএল আয়োজন করলেও দর্শকদের নজর কাড়তে পারবে না বিসিবি। বিপিএল তাই পিছিয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা ক্রিকেট বোর্ডে।

বিশ্বকাপ ছাড়াও আগামি নভেম্বরে বাংলাদেশ সফরে আসার কথা ভারতের। ক্রিকেট ভারত-বাংলাদেশ মানেই বাড়তি উত্তেজনা। দুই দেশের সমর্থকদের আনন্দে মেতে উঠা। দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ ও তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলবে ভারতীয় দল। যদিও সূচি এখনো চূড়ান্ত হয়নি। ভারত বাংলাদেশ সফরে থাকলে এই সময় বিপিএল আয়োজন করাও বেশ ‘কঠিন’।

বিশ্বকাপ ফুটবল ও ভারত সিরিজের জন্য বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) তাই আগামি বছরের শুরুতে বিপিএল আয়োজন করতে চাচ্ছে। যদিও সেই সময়ে পাকিস্তান সুপার লিগ ও সংযুক্ত আরব-আমিরাতের নতুন ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগ মাঠে গড়ানোর কথা। অবস্থা এমন হয়েছে, বিপিএল আয়োজনের জন্য সূচি খুঁজতেই গলদঘর্ম বোর্ড।

বৈশ্বিক টুর্নামেন্ট শেষের পর বিপিএল আয়োজনের পরিকল্পনার কথা জানিয়ে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের চেয়ারম্যান শেখ সোহেল সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘বৈশ্বিক টুর্নামেন্টগুলো শেষ হওয়ার পর বিপিএল মাঠে গড়ালে খারাপ হয় না। যেহেতু তিন বিছরের জন্য ফ্র্যাঞ্চাইজি দেওয়া হবে, তাই একটি স্থায়ী স্লট বের করাও খুবই প্রয়োজন।’

নবম আসর ডিসেম্বর-জানুয়ারিতে করার কথা জানিয়ে বিপিএলের জন্য নভেম্বর-ডিসেম্বরে স্থায়ী স্লট করতে হবে মন্তব্য করে শেখ সোহেল বলেন, ‘একসঙ্গে তিনটি টুর্নামেন্ট হলে বিদেশী ক্রিকেটার পেতে সমস্যা হবে। সব কিছু পর্যালোচনার পর চেষ্টা করা হবে ডিসেম্বর-জানুয়ারিতে নবম আসরটি আয়োজন করা যায় কিনা। পর্যায়ক্রমে নভেম্বর-ডিসেম্বর স্লট স্থায়ী করে ফেলতে হবে আমাদের।’

এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/ডেস্ক/০০

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here