বিসিবি নির্বাচন করবেন পাইলট

স্পোর্টস ডেস্কঃ এগিয়ে আসছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) নির্বাচন। চূড়ান্ত হয়েছে সবকিছু। চলতি মাসেই শেষ হচ্ছে বিসিবির বর্তমান কমিটির মেয়াদ। নিয়ম অনুযায়ী মেয়াদ শেষ হবার ৪৫ দিনের মধ্যে করতে হবে বোর্ড নির্বাচন। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগেই হতে যাচ্ছে সেই নির্বাচন।

আগামি ৬ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হবে বিসিবি নির্বাচন। তিনটি ক্যাটাগরিতে ২৩ জন বোর্ড পরিচালক পদে নির্বাচনের জন্য আজ ২৪ সেপ্টেম্বর শুরু হয়েছে মনোনয়ন ফর্ম বিক্রি। আগামিকাল ২৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চলবে সেটি। এবার নির্বাচন করতে যাচ্ছেন বাংলাদেশ দলের সাবেক অধিনায়ক খালেদ মাসুদ পাইলট।

সাবেক উইকেটরক্ষক এই ব্যাটসম্যান এবার রাজশাহী বিভাগ থেকে কাউন্সিলর হয়েছেন। এর আগে ছিলেন সাবেক অধিনায়ক ক্যাটাগরিতে কাউন্সিলর। রাজশাহী বিভাগ থেকে কাউন্সিলর হয়েই নির্বাচন করতে যাচ্ছেন। রাজশাহী বিভাগ থেকে পরিচালক পদে নির্বাচন করবেন পাইলট। নির্বাচনের জন্য আজ মনোনয়ন বিক্রির প্রথম দিনেই তিনি নিয়েছেন সেটি।

এরপর গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে জানিয়েছেন রাজশাহী বিভাগের ৮ কাউন্সিলরের সহায়তা পেলে নির্বাচিত হয়ে কাজ করতে চান তিনি। নিজের ক্রিকেট অভিজ্ঞতা ছড়িয়ে দিতে চান। আর একই রাজশাহী অঞ্চলের ক্রিকেটের খারাপ অবস্থার উন্নতি করতে চান।

পাইলট বলেন, ‘অনেক ইচ্ছে ছিল ক্রিকেটের সাথে কাজ করার। অবসরের পর থেকেই মাঠে, একেবারে শেকড়ে কাজ করে আসছি। রাজশাহী বিভাগ থেকে মনোনয়নপত্র তুললাম। আশা করছি নির্বাচন করবো। রাজশাহী বিভাগের কাউন্সিলররা যদি সহায়তা করেন, আশা করি বোর্ডে আসবো। আমার অভিজ্ঞতা বোর্ডের সাথে ভাগাভাগি করতে পারবো আশা করছি।’

পাইলট আরও বলেন, ‘রাজশাহী অঞ্চলের ক্রিকেট অবকাঠামোর অবস্থা বাজে, খুব দুঃখজনক। সব জেলায় খেলা হয় না। আম্পায়ার, কোচদের সুযোগ-সুবিধা কম। যদি রাজশাহীর ৮ জেলার কাউন্সিলররা আমাকে যোগ্য ব্যক্তি মনে করেন, আমি আমার ক্রিকেটীয় অভিজ্ঞতা বোর্ডের সাথে ভাগাভাগি করতে চাই।’

উল্লেখ্য, মনোনয়ন জমা দেওয়ার শেষ দিন ২৭ সেপ্টেম্বর। ২৮ সেপ্টেম্বর মনোনয়ন বাছাই করার পর প্রাথমিকভাবে প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করা হবে। যদি কোনো প্রার্থী বাদ পড়েন, তাহলে ২৯ সেপ্টেম্বর আপিল করতে পারবেন এবং সেদিনই শুনানি হবে। এছাড়া মনোনয়ন প্রত্যাহারের সুযোগ থাকছে ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত।

এদিনই ঘোষণা করা হবে প্রার্থীদের চূড়ান্ত তালিকা। এরপর ৬ অক্টোবর নির্বাচনের দিন ধার্য করা হয়েছে। সেদিন সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত চলবে ভোট গ্রহণ। এদিনই প্রাথমিকভাবে ফলাফল জানা যাবে। আর পরদিন ৭ সেপ্টেম্বর আনুষ্ঠানিকভাবে ফলাফল ঘোষণা করা হবে। নির্বাচনে ভোট দেওয়ার জন্য ১৭৪ জন কাউন্সিলরের মধ্যে ১৭১ জন কাউন্সিলর চূড়ান্ত করা হয়েছে ইতিমধ্যে।

এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/ডেস্ক/সা