বৃষ্টিতে ভাসলো ম্যাচ

    0
    18

    স্পোর্টস ডেস্ক:: বৃষ্টি মাথায় নিয়ে শুরু হয়েছিলো তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম ম্যাচটি। শেষ আর হলো না। বৃষ্টিতেই ভাসলো বাংলাদেশ ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যকার প্রথম টি-২০ ম্যাচটি। বাংলাদেশের ১৩ ওভার ব্যাটিং শেষে দ্বিতীয় দফা বৃষ্টিতে ম্যাচ বন্ধ হওয়ার পর আম্পায়াররা ম্যাচ পরিত্যাক্ত ঘোষণা করেছেন।

    তিন ম্যাচের সিরিজের প্রথম ম্যাচে এলো না কোনো ফলাফল। টস হেরে ব্যাট করতে নামা বাংলাদেশ ১৩ ওভার পর্যন্ত ব্যাট করে ৮ উইকেটে ১০৫ রান তুলেছিলো। বেরসিক বৃষ্টি প্রথমেই কমালো চার ওভার। ম্যাচ চলাকালে আবারো হাজির বৃষ্টি। তাতে কমলো আরো দুই ওভার। ১৪ ওভারের খেলায় দ্বিতীয় বৃষ্টিতে আবারো বন্ধ হয়েছে ম্যাচ। ৭ রানে নাসুম ও শুন্য রানে শরিফুল অপরাজিত ছিলেন।

    বৃষ্টিতে ম্যাচ পণ্ড হয়ে যাওয়ার আগ পর্যন্ত টাইগারদের সমর্থকদের জন্য স্বস্তির কিছুই ছিলো না। ব্যাটাররা কেবল যাওয়া-আসার মিছিলই করেছেন। পাওয়ার প্লেতেই ফিরেছেন মুনিম-বিজয়। ইনিংসের তৃতীয় বলেই দলীয় ২ রানে প্রথম উইকেট হারায় টাইগাররা। ২ রান তুলেই প্রথম ওভারে সাজঘরে ফিরে যান মুনিম শাহরিয়ার। তার বিদায়ের পর উইকেটে আসেন সাকিব আল হাসান।

    বিজয়কে নিয়ে সাকিব দ্রুতই রান তুলতে থাকেন। মারমুখী হয়ে উঠা সাকিবকে সঙ্গ দিতে পারেননি বিজয়। দলীয় ৩৬ রানেই দ্বিতীয় উইকেট হারায় টাইগাররা। চতুর্থ ওভারের তৃতীয় বলেই ব্যক্তিগত ১৬ রানে তিনি ফিরেন সাজঘরে। ১০ বলের ইনিংসেও অবশ্য তিন বাউন্ডারি হাঁকিয়েছেন তিনি। এলবিডাব্লিউ’র ফাঁদে পড়েন তিনি। রিভিউ নিয়েও বাঁচতে পারেননি।

    বিজয়ের বিদায়ের পর উইকেটে আসা লিটন দাসও ফিরেন দ্রুত। ইনিংসের সপ্তম ওভারের দ্বিতীয় বলে ৫০ পেরুতেই তৃতীয় উইকেট হারায় টাইগাররা। দলীয় ৫২ রানের মাথায় ব্যক্তিগত ৯ রানেই সাজঘরের পথ ধরেন লিটন দাস। এরপরই বড় ধাক্কাটা খায় বাংলাদেশ। শুরু থেকেই মারমুখী হয়ে রান তুলা সাকিব আল হাসান ফিরেন সাজঘরে। দলীয় ৬০রানেই চতুর্থ উইকেট হারায় বাংলাদেশ। ইনিংসের অষ্টম ওভারের তৃতীয় বলে সর্বোচ্চ ২৯ রান করা সাকিব ফিরেন প্যাভেলিয়েন। ১৫ বলের ইনিংসে দু’টি করে চার ও ছক্কা হাঁকান তিনি।

    এরপরই আসা-যাওয়ার মিছিল শুরু হয় বাংলাদেশের ব্যাটারদের। অধিনায়ক রিয়াদ, আফিফ, সোহানরা দ্রুতই ফিরেন সাজঘরে। সাকিবের বিদায়ের ওভারেই আফিফ ফিরেন সাজঘরে। অষ্টম ওভারের পঞ্চম বলে দলীয় ৬০ রানের মাথায় রানের খাতা খুলার আগেই প্যাভেলিয়নে ফেরত যান এই অলরাউন্ডার। এরপর সাজঘরে যান অধিনায়ক রিয়াদও। ইনিংসের ১১তম ওভারের প্রথম বলেই দলীয় ৭৫ রানের মাথায় ষষ্ঠ উইকেটে তিনি ফিরেন। ১৩ বলে ৮ রান করেন টাইগার দলনেতা। এরপরই বাংলাদেশের চ্যালেঞ্জিং সংগ্রহের স্বপ্নও ফিকে হয়ে যায়।

    ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে রোমারিও শিফার্ড ৩টি ও হেইডেন ওয়ালশ ২টি করে উইকেট লাভ করেন।

    এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/ডেস্ক/০০

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here