ব্যাটে-বলে নৈপুণ্য দেখিয়ে পূর্বাঞ্চলকে হারালো দক্ষিণাঞ্চল

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ নিশ্চিত ড্র’য়ের পথেই এগোচ্ছিল ম্যাচ। কিন্তু, ফলোঅনে পরে ব্যাট করতে নামা পূর্বাঞ্চল মেহেদি তোপে গুঁটিয়ে যায় দ্রুতই। সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছিলেন আফিফ। এরপর দ্বিতীয় ইনিংসে অল্প রান তাড়া করতে নেমে ১০ উইকেট হাতে রেখেই সেটি টপকে যায় দক্ষিণাঞ্চল। সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন এনামুল।

ফলোঅনে পড়া পূর্বাঞ্চল নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে আগের দিনের করা ৫ উইকেটে ৩২৩ রান নিয়ে আবারও ব্যাট করতে নামে। ৯৫ রানে অপরাজিত থাকা আফিফ দিনের শুরুতেই নিজের প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটের পঞ্চম সেঞ্চুরির দেখা পান। কিন্তু ১১৫ রান করেই বিদায় নিতে হয় তাকে। পূর্বাঞ্চলও অলআউট হয়ে পড়ে দ্রুত। নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে থামে ৩৬০ রানে।

দক্ষিণাঞ্চলের হয়ে মেহেদি হাসান ৪টি ও আব্দুর রাজ্জাক ৩টি উইকেটের দেখা পান।

ম্যাচের চতুর্থ ও শেষ ইনিংসে দক্ষিণাঞ্চলের সামনে লক্ষ্য দাঁড়ায় ১৮৫ রান। দুই ওপেনার শাহরিয়ার নাফীস ও এনামুল হক বিজয়ের ব্যাটে কোনো উইকেট না হারিয়েই সেই রান টপকে যায় দক্ষিণাঞ্চল। সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে ১০৯ রানে অপরাজিত থাকেন এনামুল। শাহরিয়ার নাফীস অপরাজিত থাকেন ৬৮ রানে।

এর আগে কক্সবাজারে প্রথম ইনিংসে ব্যাট করে সোহানের ১৫৫, এনামুলের ১২৯ ও মেহেদি হাসানের ১১২ রানের ইনিংসে ভর করে ৪৮২ রানে অলআউট হয় দক্ষিণাঞ্চল। রেজাউর ও সাকলাইন পূর্বাঞ্চলের হয়ে ৩টি করে উইকেট লাভ করেন।

জবাবে নিজেদের প্রথম ইনিংসে ৩০৬ রানে অলআউট হয় পূর্বাঞ্চল। পিনাক ৮০ ও মোহাম্মদ আশরাফুল করেন ৭১ রান। দক্ষিণাঞ্চলের হয়ে মেহেদি ৫টি ও রাজ্জাক ৩টি উইকেট শিকার করেন।

এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/সা