ভেন্যু কমিয়ে চলবে জাতীয় লিগ, ম্যাচ পাচ্ছে না সিলেট স্টেডিয়াম

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ বাড়ছে করোনার প্রকোপ। যার কারণে চলমান বঙ্গবন্ধু ২২তম জাতীয় লিগের বাকি খেলাগুলো মাঠে গড়ানো শঙ্কার মুখে। গত ২২ মার্চ টুর্নামেন্ট শুরুর পর থেকেই করোনায় আক্রান্ত হতে শুরু করেছেন ক্রিকেটাররা। নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হলেন আকবর আলী। এদিকে সিলেট বিভাগীয় দলের একাধিক ক্রিকেটারও আক্রান্ত হয়েছেন এই ভাইরাসে।

এর আগে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন মোহাম্মদ আশরাফুল-সাদমান ইসলামসহ একাধিক ক্রিকেটার। যে কারণে এমন পরিস্থিতিতে খেলা চালিয়ে যাওয়া কঠিন ও ঝুঁকিপূর্ণ কাজ বটে। কিন্তু খেলোয়াড়দের আর্থিক দিক বিবেচনা করেই শুরু হয়েছিল জাতীয় লিগ। হুট করে আবার বন্ধ করে দেওয়াও তাই সুফল বয়ে আনবে না।  এমন পরিস্থিতিতে পরিসর কমিয়ে জাতীয় লিগ চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিসিবি।

পূর্বনির্ধারিত সূচি অনুযায়ীই লিগ আয়োজনের পরিকল্পনা রয়েছে। তবে বদলে যাবে ভেন্যু। ঢাকা, খুলনা, বিকেএসপি, রাজশাহী, বরিশাল, রংপুর ও কক্সবাজার ছিল আগের ভেন্যু তালিকায়। কিন্তু করোনার কারণে হোম অ্যান্ড অ্যাওয়ে ভিত্তিতে আর খেলতে পারবে না দলগুলো। আগের দুই রাউন্ডে প্রতিটি বিভাগীয় দলই নিজ নিজ বিভাগে ম্যাচ পেলেও এই দুই রাউন্ডে সিলেট নিজেদের মাঠে ম্যাচ পায় নি। কারণ এই সময়ে সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ নারী ইমার্জিং দলের বিপক্ষে দক্ষিণ আফ্রিকার নারী ইমার্জিং দলের ওয়ানডে সিরিজ আছে। তবে ধারণা করা হচ্ছিল প্রথম দুই রাউন্ড শেষে ‘হোম’ অ্যাডভান্টেজ পাবে সিলেট দল। কিন্তু করোনার প্রকোপে বেড়ে যাওয়ায় বিসিবি ভেন্যু কমিয়ে দিচ্ছে। সেক্ষেত্রে হোম ম্যাচ পাচ্ছে না সিলেট।

বিসিবির পরিকল্পনা অনুযায়ী, দ্বিতীয় রাউন্ডের পর থেকে খেলাগুলো অনুষ্ঠিত হবে কেবল দুটি ভেন্যুর চারটি মাঠে। কক্সবাজারের শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে দুটি ম্যাচ। বাকি দুটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে সাভারস্থ বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের (বিকেএসপি) দুই মাঠে।

এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/ডেস্ক/১১০