মাশরাফীকে অবসর নিতে জাতীয় দলের কোচের আহ্বান!

স্পোর্টস ডেস্কঃ দীর্ঘদিন ধরে বাংলাদেশ দলকে সার্ভিস দিয়ে আসছেন মাশরাফী বিন মোর্ত্তাজা। পায়ে সাত বার অস্ত্রোপাচারের পরও বার বার ঘুরে দাঁড়িয়েছেন তিনি। টি-টোয়েন্টি থেকে অবসর নিয়েছেন দীর্ঘদিন হয়েছে। অবসর না নিলেও টেস্ট খেলেন না তিনি। ওয়ানডে থেকে নেতৃত্ব ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তাই মাশরাফী শুধুমাত্র এখন একজন পেসার। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে শুধুমাত্র ওয়ানডে ম্যাচে খেলারই সুযোগ রয়েছে ক্রিকেটার হিসেবে।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন জানিয়েছেন যদি পারফর্ম করতে পারেন তাহলে, স্কোয়াডে জায়গা হবে যেকোনো ক্রিকেটারেরই। তাই বলা চলে মাশরাফীর ক্ষেত্রে একই শর্ত প্রযোজ্য। তবে পারফর্ম করেই কি শুধু স্কোয়াডে জায়গা হবে ম্যাশের? বাংলাদেশ জাতীয় দলের পেস বোলিং কোচ ওটিস গিবসন অবশ্য মাশরাফীর সামনে সেই পথ খোলা দেখছেন না।

এই সাবেক ক্যারিবিয়ান ক্রিকেটার সরাসরি কিছু না বললেও, ইঙ্গিত দিয়েছেন অবসর নেওয়ার। তবে অবসর নিয়ে অন্যভাবে জাতীয় দলকে সাহায্য করার কথা বলছেন তিনি। সেটা একজন পরামর্শক হিসেবে। এবাদত, খালেদ, সাইফুদ্দিন, হাসান মাহমুদের মতো তরুণ বোলারদের সহযোগীতা করতে পারেন ম্যাশ। এসব কিছুই বলছেন একটি কারণে। সেটি হলো, ২০২৩ বিশ্বকাপে মাশরাফীকে নিয়ে রাসেল ডোমিঙ্গোর কোনো নেই বলে।

ফাইল ছবি।

দেশের শীর্ষস্থানীয় এক গণমাধ্যমকে গিবসন বলেন, ‘আমার কাছে মনে হয় মাশরাফীর দারুণ এক আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার আছে। সে নিজেকে ও নিজের দেশকে গর্বিত করেছে। ২০২৩ বিশ্বকাপকে সামনে রেখে যেকোনো কোচই নিজের দল গঠন করতে চাইবে। রাসেল ডোমিঙ্গো কি ভাববেন আমি নিশ্চিত আছি। সে হাসান মাহমুদ, সাইফুদ্দিন, শফিউল, এবাদতদের বাজিয়ে দেখতে চাইবেন। এবাদতকে এখনো সাদা বলে খেলতে দেখিনি আমরা। তাসকিন-খালেদ ফিট হয়ে উঠছে। হাশাণ ও মেহেদি রানাকে দেখছি আমরা। এই দেশে অনেক তরুণ ফাস্ট বোলার আছে।’

গিবসন আরও বলেন, ‘আমার কাছে মনে হয় রাসেল ভবিষ্যতের দল গঠন করতে যাচ্ছে। সেখানে মাশরাফী কি করবে তা জানি না আমি। বিশ্বে যা চলছে আমার মনে হয় তাঁর (মাশরাফী) এখন ‘মুভ অন’ করার সময় এসে গেছে। যে জ্ঞানের সমৃদ্ধভাণ্ডার তাঁর রয়েছে, সেটা ভিন্ন উপায়ে তরুণদের কাছে পৌঁছাতে পারে। আমি মনে করি না, সেটা করতে তাঁকে (মাশরাফী) মাঠেই থাকতে হবে।’

এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/ডেস্ক/সা