মুশফিকের বাদ পড়া নিয়ে ‘চুপ’ অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ সদ্য সমাপ্ত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ মোটেও ভালো যায়নি বাংলাদেশ দলের। ভালো যায়নি মুশফিকুর রহিমেরও। যার ফলে গুঞ্জন শুরু হয় পাকিস্তান সিরিজ থেকে বাদ পড়তে যাচ্ছে মিস্টার ডিপেন্ডেবল। এরপর আবার গুঞ্জন উঠে শেষ সুযোগ পেতে যাচ্ছেন তিনি।

তবে শেষ পর্যন্ত বাদই পড়েছেন মুশফিক। নির্বাচকরা ব্যাখ্যা দিয়েছেন বিশ্রামের। সামনে চার টেস্টে টানা খেলতে হবে, সেই কারণেই নাকি বাদ দেওয়া হয়েছে তাকে। তবে মুশফিক বলছে ভিন্ন কথা। তিনি জানিয়েছেন গণমাধ্যমকে, ভুল একটা ব্যাখ্যা দেওয়া হয়েছে তাকে নিয়ে। তিনি খেলার জন্যই প্রস্তুত ছিলেন। নির্বাচকদেরকে জানিয়েছেনও বিষয়টা। তবে নির্বাচকরা কেন নেননি সেটা তারা জানেন।

যার ফলে বিষয়টা পরিষ্কার হয়ে এসেছে, মুশফিককে ছেঁটে ফেলাই ছিল উদ্দেশ্য। নির্বাচক আর মুশফিকের বক্তব্য সাংঘর্ষিক বেশ। যা এখন ক্রিকেট পাড়ার তর্যার বিষয়। দল থেকে মুশফিককে বাদ দেওয়ার ব্যাপারে কি ছিল অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের ভূমিকা? অধিনায়কের কোনো পরামর্শ চাওয়া হয়েছে কিনা বা তার মতামতকে গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে কিনা, এই নিয়েও আলোচনা হচ্ছে। পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ পূর্ববর্তী সম্মেলনেও উঠে এসেছে বিষয়টি।

তবে সংবাদ সম্মেলনে এই নিয়ে নিশ্চুপ মাহমুদউল্লাহ। কোনো ধরনের মন্তব্য করতে রাজি হননি তিনি। মুশফিকের বাদ পড়া ইস্যুতে মাহমুদউল্লাহ বলেন, ‘এটা টিম ম্যানেজম্যান্টের কাউকে প্রশ্ন করলে ভালো হবে। আমি এই নিয়ে কোনো ধরনের কমেন্ট করতে চাই না।’

তখন মাহমুদউল্লাহর কাছে প্রশ্ন ধেয়ে যায়, টিম ম্যানেজম্যান্টের অংশ একজন অধিনায়ক হিসেবে তিনিও। তার মতামতকে গুরুত্ব দেওয়া হয়। আর মুশফিকও একটা ‘বোমা’ ফাটিয়েছেন গণমাধ্যমে। তবে মাহমুদউল্লাহ জানিয়েছেন, টিম ম্যানেজম্যান্টের অংশ হলেও তিনি কোনো ধরনের সিদ্ধান্ত নেন না। মুশফিক কি বলেছেন সেটাও জানেন না।

এই প্রসঙ্গে মাহমুদউল্লাহ বলেন, ‘হ্যা, (ম্যানেজম্যান্টের অংশ) তবে আমি কোনো সিদ্ধান্ত নেই না। মুশফিক কি বলেছে, আমি নিজেও জানি না। আগে আমি জানি, এরপর দেখি কি!’

এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/ডেস্ক/সা