মেসির গোলে পা ভাঙতে গিয়েছিলেন আলভেজ!

স্পোর্টস ডেস্ক:: চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে মুখোমুখি ম্যানইউ ও বার্সা। দুই দলের দারুণ লড়াই। ম্যাচ শেষে স্কোর ৩-১। ২০১০-২০১১ মৌসুমের ফাইনালে শিরোপা জিতে মেসির বার্সেলোনা। ওই ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে মেসির গোলের পর উৎসবে মেতে উঠে বার্সা শিবির।

দানি আলভেজ এতটাই উচ্ছ্বসিত ছিলেন যে, খুশিতে লাথি মেরে বসেন মাইক্রোফোনে। তাতে ভাঙার হাত থেকে অল্পের জন্য রক্ষা পায় তার। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ইতিহাসের অন্যতম এই ফাইনাল ম্যাচটি নিয়ে সম্প্রতি স্মৃতিচারণ করেছেন মেসি। তার কমেন্ট বক্সেই দানি আলভেজ জানিয়েছেন এই তথ্য।

শিরোপা জয়ী এই ম্যাচটিকে মেসি ক্যারিয়ারে অসাধারণ মনে করছেন। বলেছেন, এমন দিন আর আসবে না। ম্যাচের শুরুতে পেদ্রোর গোলে বার্সা লিড নেয়। তবে সেই লিড বেশিক্ষণ ধরে রাখতে পারেনি। ওয়েন রুনির গোলে সমতায় ফেরে ম্যানইউ। ফাইনালকে সমতায় রেখেই বিরতিতে যায় দুই দল। বিরতির পর দ্বিতীয়ার্ধে খেলা শুরুর পরপরই মেসির গোলে লিড নেয় বার্সা।

আর্জেন্টাইন জাদকুরের ওই গোলের পর বার্সা শিবিরের উল্লাস ছিলো দারুণ। উচ্ছ্বাসে গিয়ে নিজের পা ভাঙার শঙ্কায় পড়েন আলভেজ। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের স্পন্সর লেইস এর সঙ্গে এক প্রমোশনাল ইভেন্টে যোগ দেন মেসি স্মৃতি চারণ করেছেন। ইনস্টাগ্রামে তিনি লেখেন, ‘ওটা ছিল চ্যাম্পিয়ন্স লিগে আমার অন্যতম সেরা একটি স্মৃতি। এ ধরনের স্মৃতি কখনোই ফিরে আসে না।’

ইনস্টাগ্রামে মেসির করা পোস্টের নিচে কমেন্ট বক্সে অনেকেই কমেন্ট করছেন। সেই পোস্টে মেসির সাবেক সতীর্থ, ব্রাজিলিয়ান ডিফেন্ডার দানি আলভেজ মজা করে লেখেন, ‘আমি তো প্রায় আমার পা’টাই ভেঙে ফেলছিলাম, ওই বাজে মাইক্রোফোনটার সঙ্গে। পুরো ব্যাপারটা ঘটেছে শুধু তোমার কারণেই।’

এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/ডেস্ক/০০