মেসি-রোনালদোসহ সকল ফুটবলারের পাশে ফিফপ্রো

স্পোর্টস ডেস্কঃ বিতর্কিত ইউরোপিয়ান সুপার লিগ নিয়ে কঠোর অবস্থানে উয়েফা ও ফিফাসহ অন্যান্য ফুটবল সংস্থাগুলো। কিন্তু ফুটবলের সঙ্কটময় এমন পরিস্থিতিতে দুই পক্ষের মুখোমুখি অবস্থানের মাঝখানে পড়ে গেছেন ফুটবলাররা। বিশ্বের অন্যতম সেরা ১২ ক্লাব ইতিমধ্যেই ঘোষণা দিয়েছে সুপার লিগে সদস্য হওয়ার। এর বাইরে আরও তিনটি দল সেখানে যুক্ত হবে। এই ১৫ দলের সাথে বিভিন্ন সময় কোয়ালিফাই করে আরও ৫টি দল সেখানে অংশ নিবে।

সব মিলিয়ে প্রচুর সংখ্যক ফুটবলার জড়িয়ে আছেন সেখানে। যাদের অধিকাংশই তারকা। অথচ এই সুপার লিগে খেললে জাতীয় দলের পথ বন্ধ হয়ে যাবে বলে হুশিয়ারি এসেছে। তবে এর কড়া জবাব দিয়েছে পেশাদার ফুটবলারদের সংগঠন ফিফপ্রো। সংগঠনটি জানিয়েছে নিজেদের উদ্দেশ্য সাধনে খেলোয়াড়দের ব্যবহার করা যাবে না। জাতীয় দল থেকে বাদ দেওয়ার বিষয়টির কঠোর বিরোধিতা করে যাবতীয় সকল কিছু করার ঘোষণা দিয়েছে সংগঠনটি।

এক বিবৃতিতে ফিফপ্রো বলে, ‘এমন সিদ্ধান্ত ফুটবলের সংস্কৃতি, ফুটবলের পরিচয় এবং বিশেষ করে খেলোয়াড়দের ক্যারিয়ারের ওপর কীরকম প্রভাব ফেলবে, সেটি নিয়ে খেলোয়াড় এবং তাদের সংগঠনগুলোর মধ্যে অনেক ধরনের উৎকণ্ঠা এবং প্রশ্ন তৈরি হয়েছে।’

‘খেলোয়াড়দেরকে কোনো পক্ষের সম্পদ ও উদ্দেশ্য সাধনের জন্য যদি ব্যবহার করা হয়, সেটি ফিফপ্রোর কাছে অগ্রহণযোগ্য। আমরা ৬৪টি ‘ন্যাশনাল প্লেয়ার অ্যাসোসিয়েশন’ এবং ৬০ হাজার খেলোয়াড়ের প্রতিনিধি। যেকোনো পক্ষের কোনো ধরনের খেলোয়াড়দের স্বার্থবিরোধী সিদ্ধান্ত, জাতীয় দল থেকে বাদ দেওয়ার মতো সিদ্ধান্ত নেওয়া হলে আমরা সেটির কঠোর বিরোধিতা করব। খেলোয়াড়দের ও ফুটবলের সর্বোচ্চ স্বার্থ সুরক্ষা, খেলাটির সব স্তরকে সমর্থন করে এবং বিদ্যমান সমস্যাগুলোর সমাধান করার ক্ষেত্রে আমরা সব পক্ষের সঙ্গে কাজ করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ আছি।’

এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/ডেস্ক/সা