সাকিব-সুজন ভাইদের অবদানেই এতদূর এসেছি : রাহী

::আবু জায়েদ চৌধুরী রাহী::

গত ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ একে বারে খারাপ খেলিনি। ঘরোয়া টুর্ণামেন্ট গুলোতে নিয়মিত খেলছি। কখনো একবারের বাজে খেলা হয়নি। তাই এবার বিপিএলের আগে দল পাবো এমনটাই ভাবছিলাম।

কিন্তুু বিপিএলের নিলামে আমাকে কিনতে কেউই আগ্রহ দেখালো না। অন্যদের মতই আমি ব‌্যথিত হয়েছিলাম, কষ্ট পেয়েছিলাম। তবে মনে বিশ্বাস ছিলো হয়তো দল পাবো। আর পেলেই নিজের যোগ্যতার প্রমাণ দিতে পারবো।

মন যা বলছিলো তাই হলো। ক্রিকেটের এই রঙিন দুনিয়াতে, বিশেষ করে ঢাকা কেন্দ্রিক ক্রিকেটে একটু বেশিই আদর পাই সুজন ভাই, সাকিব ভাইদের কাছ থেকে। বিপিএলের একেবারে শেষ মুহুর্ত, সব দলই প্রস্তুুতি শুরু করে দিয়েছে। দু’এক দিন পরই মাঠে গড়াবে বিপিএল। এরই মধ্যে সুজন ভাই যোগাযোগ করলেন। তাঁর ও সাকিব ভাইয়ের আগ্রহতেই আমি দল পেয়ে যাই।

বিপিএল শুরুর ঠিক আগ মুহুর্তে আমাদের শিরোপা প্রত্যাশিত ঢাকা ডায়নামাইটসে যোগ দেই। তারকা খচিত দলটিতে যোগ দিয়ে শুরুর একাদশে তেমন একটা সুযোগ পাচ্ছিলাম না। তাছাড়া শুরুতে দলও পাইনি। এ নিয়ে মনটা মোটেই ভাল ছিল না।

তবে সেই সময়টা এখন কেটে গেছে। বিপিএল খেলছি, ঢাকা ডায়নামাইটসের উৎসবেই আছি। বিশেষ করে সাকিব ভাই অনেকটা আস্থা নিয়ে আমাকে কয়েকটি একাদশে দলে নিলেন।

আমি পেলাম সুযোগ। শুরুতেই আত্মবিশ্বাস ছিলো আমি পারবো। আমি তা পেরেছি। সাকিব ভাইয়ের আস্থার প্রতিদান কতটুকু দিচ্ছি সে বিচার হয়তো তাঁরাই করবেন। তবে যে খারাপ খেলছি তা নয়, এটা ভেবেই মনে কিছুটা হলেও প্রশান্তি আসে।

ঢাকা ডায়নামাইটসের হয়ে শেষের কয়েকটা ম্যাচ ধারাবাহিক ভাবে খেলছি। এর সবটুকু অবদানই তাই সাকিব ভাইকে দিতে হবে। আমার হাতে বল তুলে দিয়ে যতটুকু পরামর্শ দেওয়ার তা দিতেন। প্রতিটি বলেই ছিলো তাঁর দিক-নির্দেশনা। এমন একজন বিশ্ব সেরার দলে খেলতে পেরে সত্যিই আনন্দিত লাগছে।

ভালো লাগছে দলের খেলোয়াড়, বন্ধু, আত্মীয়-স্বজন শুভাকাংখিদের দোয়া আর ভালোবাসায় নিয়মিত পারফর্ম করছি। শুরুতে যে ‘উপেক্ষিত’ ছিলাম, তা এখন আর নেই। সুযোগ পেয়ে মাঠে তাই পারফর্ম করতে পারছি এটাই বড় পাওয়া।

মাঠের পারফর্ম হয়তো তেমন উজ্জ্বলতা ছড়াচ্ছে না। তবে একজন পেসার হিসেবে রানের চাকা চেপে ধরতে পারছি, ব্যাটসম্যানদের উইকেট পাচ্ছি। এটাই অনেক পাওয়া। হয়তো শুরু থেকে সুযোগ পেলে, পারফর্ম আরেকটু ভালো হতে পারতো।

আমি ভাবতেই পারিনি যে এবারের বিপিএল আসরে অবিক্রিত থেকে যাবো। গত বছর বিপিএলে একেবারে খারাপ করিনি। যতটি ম্যাচে সুযোগ পেয়েছি, চেষ্টা করেছি ভাল করার। এরপর ঘরোয়া টুর্ণামেন্টগুলোত ভালো খেলায় দল পাবো সেই প্রত্যাশা ছিলাম। কিন্তুু তা হয়নি। এনিয়ে শুরুতে অনেকটা খারাপ লাগছিলো।

আমাদের সিলেটের একটা ফ্র্যাঞ্চাইজি থাকলো হয়তো আরো ভাল হতো। সিলেটের অনেক খেলোয়াড় সুযোগ পেত। আমি হয়তো শুরু থেকে খেলার সুযোগ পেতাম। অন্যান্য বিভাগের খেলোয়াড়রা নিজ নিজ অঞ্চলের দলে সুযোগ পাচ্ছে। কিন্তুু আমরা তেমন সুযোগ পাচ্ছি না।

আশাকরি আমাদের দল ঢাকা ডায়নামাইটস চ্যাম্পিয়ন হবে। আমরা সেই লক্ষ্যেই খেলছি। দুর্বার গতিতে এগিয়ে যাচ্ছি। এ যাত্রা পথে তাই আমার সকল শুভাকাঙ্খী, বন্ধু, স্বজন সবার দোয়া চাই।

লেখক: সিলেটের ক্রিকেটার, ঢাকা ডায়নামাইটস।

– অনুলিখন/এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/রাহী/ফো/৩ডিসেম্বর/০০