সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে রেকর্ডের পাতায় মুমিনুল

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ ঘরের মাঠ চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরি স্টেডিয়ামকে পয়মন্ত বলা হয় মুমিনুলের জন্য। ঠিক কেন বলা হয়, সেটি আরও একবার দেখিয়ে দিলেন বাংলাদেশ অধিনায়ক। ক্যারিবিয়ানদের বিপক্ষে সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন এই বাঁহাতি তারকা ব্যাটসম্যান।

কর্নওয়ালের বিপক্ষে অফ সাইড ফ্লাইট শটে লিটন দাসের সাথে প্রান্ত বদল করেই মুমিনুল উদযাপনে মাতেন। টেস্ট ক্যারিয়ারের দশম সেঞ্চুরি পূরণ হয়েছে এই ব্যাটসম্যানের। যা কিনা কোনো বাংলাদেশি ব্যাটসম্যান হিসেব সর্বোচ্চ। এর আগে তামিম ইকবালের সাথে ৯ সেঞ্চুরি নিয়ে যৌথভাবে শীর্ষে ছিলেন তিনি। এবার একক রাজত্ব করে নিলেন মুমিনুল।

টেস্ট ক্যারিয়ারের দশম সেঞ্চুরি হলেও, সাতটিই হাঁকিয়েছেন চট্টগ্রামের এই মাঠটিতে। যা কিনা মুমিনুলকে বসিয়ে দিয়েছে কুমার সাঙ্গাকারা, মাহেলা জয়াবর্ধনে, মাইকেল ক্লার্কদের পাশে। টেস্টে এক ভেন্যুতে সর্বোচ্চ সেঞ্চুরির তালিকায় এই কিংবদন্তিদের সাথে যৌথভাবে চতুর্থ স্থানে এখন মুমিনুল। এছাড়া বাংলাদেশিদের মধ্যে এক ভেন্যুতে সর্বোচ্চ সেঞ্চুরির রেকর্ডও এটি। এদিকে আরও একটি রেকর্ড নিজের নামে করে নিয়েছেন ২৯ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার। টেস্ট ক্যারিয়ারে প্রথম দশটি সেঞ্চুরির সবগুলোই ঘরের মাঠে হাঁকানো প্রথম ক্রিকেটার হলেন মুমিনুল।

মুমিনুলের সেঞ্চুরির আগে নিজের ফিফটি পূরণ করেছেন লিটন দাস। এই তারকা নিজের টেস্ট ক্যারিয়ারের ষষ্ঠ ফিফটির দেখা পেয়েছেন। তবে ফিফটি পেয়েই আগ্রাসী ব্যাটিং করতে যান তিনি। আর এতেই উইকেট দিয়ে আসেন ওয়ারিক্যানের বলে। তবে এর আগে ১১২ বলে ৫ বাউন্ডারিতে খেলেছেন ৬৯ রানের দারুণ এক কার্যকরী ইনিংস।

ভেঙে যায় মুমিনুলের সাথে ১৩৩ রানের অসাধারণ এক জুটি। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত বাংলাদেশ দল দ্বিতীয় ইনিংসে নিজেদের স্কোর দুইশ পার করে দিয়েছে। স্বাগতিকদের সর্বশেষ সংগ্রহ ৫ উইকেটের বিনিময়ে ২০৭ রান। মুমিনুল ১০৯ ও মিরাজ ১ রানে অপরাজিত আছেন।

এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/সা