হাসনাইনের ক্যারিয়ার সেরা বোলিং, উইলিয়ামসের সেঞ্চুরিতে জিম্বাবুয়ের বড় পুঁজি

ছবিঃ আইসিসি।

স্পোর্টস ডেস্কঃ রাওয়ালপিন্ডিতে পাকিস্তানের বিপক্ষে বড় স্কোরের দেখা পেয়েছে জিম্বাবুয়ে। আগে ব্যাট করে সিরিজের তৃতীয় এবং শেষ ওয়ানডেতে সফরকারীদের সংগ্রহ ২৭৮ রান। সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন ফর্মে থাকা শন উইলিয়ামস। এছাড়া ফিফটি পেয়েছেন আরেক অভিজ্ঞ ব্রেন্ডন টেলর। শেষদিকে ব্যাটিংয়ে নেমে দ্রুত রান তোলায় বেশ সফল ছিলেন সিকান্দার রাজা। পাকিস্তানের হয়ে এদিন ক্যারিয়ার সেরা বোলিং করেছেন মোহাম্মদ হাসনাইন।

টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরুতে ২২ রানের মধ্যেই টপ অর্ডারের তিন ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে বসে জিম্বাবুয়ে। এরপর দলের হাল ধরায় যথারীতিভাবে এগিয়ে আসেন দুই অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান ব্রেন্ডন টলর ও শন উইলিয়ামস। ফর্মে থাকা দুই ব্যাটসম্যান মিডল অর্ডারে ৮৪ রানের জুটি গড়ে তুলে সামাল দেন। মোহাম্মদ হাসনাইনের বলে ফেরার আগে ফিফটির দেখা পেয়ে ৫৬ রান করে যান টেলর।

এরপর ওয়েসলে মাধেভের সাথে জুটি গড়েন উইলিয়ামস। দু’জনের ৭৫ রানের জুটি ভাঙে ৩৩ রান করার মাধেভের বিদায়ে। উইকেটে এসে আরেক অভিজ্ঞ ক্রিকেটার সিকান্দার রাজা, উইলিয়ামসের সাথে দলের হাল ধরেন। দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে দলকে এগিয়ে নিয়ে যেতে থাকা উইলিয়ামস এর মাঝেই দেখা পান ওয়ানডে ক্যারিয়ারের চতুর্থ সেঞ্চুরি।

নির্ধারিত ৫০ ওভারে জিম্বাবুয়ের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৬ উইকেটে ২৭৮ রান। সেঞ্চুরি হাঁকানো উইলিয়ামস অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়েন ১১৮ রানে। এর জন্য খেলেছেন ১৩৫ বল। ১৩ বাউন্ডারির সাথে হাঁকিয়েছেন ১ ছক্কা। অপরদিকে ইনিংসের একেবারে শেষ দিকে এসে আউট হওয়ার আগে সিকান্দার রাজা খেলেন ৩৬ বলে ৪ চার ও ১ ছক্কায় ৪৫ রানের ইনিংস।

পাকিস্তানের হয়ে এদিন দুর্দান্ত বল করেছেন হাসনাইন। একাদশে ফিরেই এই তরুণ ডানহাতি পেসার জিম্বাবুয়ের ৬ উইকেটের পাঁচটি উইকেট একাই শিকার করেছেন। ১০ ওভার বল করে খরচ করেছেন মাত্র ২৬ রান। পাকিস্তান শিবিরকে উপহার দিয়েছেন ৩টি মেইডেন ওভার। ১০-৩-২৬-৫ হাসনাইনের ক্যারিয়ার সেরা বোলিং ফিগার।

এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/ডেস্ক/সা