১২১ রানের বিশাল জয়ে সিরিজ জিতলো বাংলাদেশ

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ ব্যাটে-বলে দুর্দান্ত নৈপুণ্য দেখিয়ে সিরিজ জিতে নিল বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল। আফগানিস্তান অনূর্ধ্ব-১৯ দলকে সিরিজের তৃতীয় ওয়ানডেতে ১২১ রানের বিশাল ব্যবধানে হারিয়েছে জুনিয়র টাইগাররা। বাংলাদেশের হয়ে ব্যাট হাতে আইচ মোল্লা সেঞ্চুরি হাঁকানোর পর, বল হাতে পাঁচ উইকেট শিকার করেছেন নাইমুর রহমান নয়ন। আর এতেই পাঁচ ম্যাচের সিরিজে এখনও দুই ম্যাচ বাকি থাকতে ৩-০’তে সিরিজ জয় নিশ্চিত করল বর্তমান বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের উত্তরসূরিরা।

বাংলাদেশের দেওয়া ২২৩ রানের লক্ষ্য টপকাতে গিয়ে মাত্র ১০১ রানে গুঁটিয়ে যায় আফগানিস্তানের ইনিংস। ইনিংসের শুরু থেকেই ধীর গতির ব্যাটিংয়ে উইকেটে টিকে থাকার সংগ্রাম করছিল সফরকারীরা। তবে ইয়ং টাইগার নাইমুর সেটি হতে দেননি। আগের ম্যাচে ৪ উইকেট নেওয়া এই বাঁহাতি স্পিনার, এদিনও ধস নামিয়েছেন আফগান ব্যাটিং লাইনআপে। তার সঙ্গে ছিলেন রিপন মণ্ডলও।

শেষ পর্যন্ত ৩৯.৪ ওভারে কোনমতে দলীয় রান একশ পার করে ইনিংস থেমে যায় আফগানিস্তানের। দলের পক্ষে চার জন্য ব্যাটসম্যান কেবল পার করতে পারেন ব্যক্তিগত রানের দুই অঙ্কের কোটা। যার মধ্যে ৪৭ বলে ২ বাউন্ডারিতে সর্বোচ্চ ২২ রান করেন বিলাল সায়েদি। ৪৬ বলে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২১ রান করেন অধিনায়ক ইজাজ আহমেদ।

বাংলাদেশের হয়ে ৭.৪ ওভারে ১ মেইডেনসহ ১৭ রানে ৫ উইকেট নেন নয়ন। অনূর্ধ্ব-১৯ দলের ক্রিকেটে ওয়ানডেতে বাংলাদেশের এটি পঞ্চম সেরা বোলিং ফিগার। প্রথম তিন ম্যাচ শেষে তার নামের পাশে এখন ১১ উইকেট। এছাড়া রিপন ৭ ওভারে ২ মেইডেনসহ ১৭ রানে ৩ উইকেট শিকার করেন। ১০ ওভারে ২৩ রান দিয়ে ২টি উইকেট লাভ করেন আরিফুল ইসলাম।

এর আগে সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচে টস জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন যুবা টাইগারদের অধিনায়ক মেহরব। তবে ব্যাট করতে নেমে ধীর গতিতে চলতে থাকে স্বাগতিকদের ইনিংস। মূলত ৪.২ ওভারের মধ্যে ওপেনার প্রান্তিক ও টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান খালিদকে হারিয়ে ধাক্কা খায় বাংলাদেশ।

সেখান থেকে ৬১ রানের জুটি গড়ে দলকে বিপদমুক্ত করেন আরেক ওপেনার মফিজুল ও চারে নামা আইচ মোল্লা। কিন্তু এই ৬১ রান তুলতে দু’জনে খেলে ফেলেন ২৪ ওভার। ৯৩ বলে মাত্র ২৭ রান করে মফিজুল ফিরলে ভাঙে সেই জুটি। ধীর গতির ব্যাটিং করে যাচ্ছিলেন আইচও। তবে পরবর্তীতে মারমুখী হন তিনি। তুলে নেন ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি। শেষ পর্যন্ত ১৩০ বলে ৮ বাউন্ডারি ও ৪ ছক্কায় ১০৮ রান করে প্যাভিলিয়নে ফেরেন আইচ।

এর বাইরে শেষ দিকে আল মামুনের ২০ বলে ৩ ছক্কা ও ১ বাউন্ডারিতে ৩২ রানের ঝড়ো ইনিংস ও তাহজিবুলের ১৮ রানের ইনিংসে আফগানদের সামনে চ্যালেঞ্জিং লক্ষ্য দাঁড় করাতে পারে বাংলাদেশ। এছাড়া অধিনায়ক মেহরব ৭ ও আরিফুল ইসলাম ৪ রান করেন।

আফগানিস্তানের হয়ে ফয়সল খান ১০ ওভার বল করে ১ মেইডেনসহ ৩৯ রানে ৩টি উইকেট শিকার করেন। নাভিদ জারদান, ইজাজ ও ইহহারুলহক ১টি করে উইকেট লাভ করেন।

এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/সা