২০০ খেলোয়াড়-সংগঠককে ১০ লাখ টাকা দিলেন মাহি উদ্দিন সেলিম

নিজস্ব প্রতিবেদক:: মাহি উদ্দীন আহমদ সেলিম। সিলেটের একজন ক্রীড়া সংগঠক, একজন সমাজসেবী। সমাজের অসহায়, পিছিয়ে পড়া মানুষের সাহায্যে সব সময়ই পাশে থাকেন তিনি। করোনাকালীন দুর্যোগের এই সময়েও অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন তিনি।

দীর্ঘ দিন থেকে লকডাউণ থাকায় মানুষের স্বাভাবিক জীবনে স্থবিরতা নেমে এসেছে। মধ্যবিত্ত, নিম্নবিত্ত শ্রেণীর লোকজন আছেন চরম দুর্ভোগে। এমন দুঃসময়ে জেলার খেলোয়াড়দের পাশে দাঁড়িয়েছেন ক্রীড়া সংগঠক মাহি উদ্দিন আহমদ সেলিম। জেলা ক্রীড়া সংস্থার অভিভাবক বিপদের এই সময়ে জেলার খেলোয়াড়দের কথা ভুলে যাননি।

যারা একসময় খেলে গেছেন জেলা দলে, সিলেটের ক্রীড়াঙ্গণে আছে যাদের অবদান, করোনার এই বিপর্যয়ে তাদের পাশে দাঁড়িয়েছেন তিনি। ঈদের টিক আগ মুহুর্তে সাবেক-বর্তমান খেলোয়াড়দের মধ্যে হাসি ফুটাতে মাহি উদ্দিন সেলিম নগদ ১০ লাখ টাকা তুলে দিয়েছেন তাদের হাতে। ক্রীড়া অভিভাবকের এমন মানবিক কাজের প্রশংসা করছেন সবাই।

নিজের ব্যক্তিগত উদ্যোগে এর আগেও সাধারণ মানুষের মধ্যে কয়েক লাখ টাকার খাবার সামগ্রী বিতরণ করেছেন। বিভিন্ন ক্রীড়া সংগঠনগুলোর সাহায্য তহবিলেও দান করছেন। এবার তিনি পাশে দাঁড়িয়েছেন সিলেট জেলা দলে খেলা সাবেক, বর্তমান খেলোয়াড় ও সংগঠকদের পাশে। ক্রিকেট, ফুটবল, হকি, কাবাডিসহ সাতটি ইভেন্টে যারা জেলা দলে খেলেছেন, যারা সংগঠক ছিলেন এরকম ২০০ জনের মধ্যে বিতরণ করেছেন ১০ লাখ টাকা। প্রত্যেককেই ৫ হাজার টাকা করে দেওয়া হয়েছে।

সিলেট জেলা স্টেডিয়ামে ২০ মে বৃহস্পতিবার খেলোয়াড় ও সংগঠকদের হাতে আর্থিক এই উপহার তুলে দেন মাহি উদ্দিন সেলিম। ক্রীড়া সংস্থা বা ফেডারেশনের পক্ষ থেকে নয়, নিজের ব্যক্তিগত তহবিল থেকেই খেলোয়াড় ও কর্মকর্তাদের পাশে দাঁড়িয়েছেন তিনি।

সিলেট জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক, জেলা ফুটবল এসোসিয়েশনের সভাপতি, বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য মাহি উদ্দিন সেলিম নিজে উপস্থিত থেকে খেলোয়াড় ও কর্মকর্তাদের হাতে উপহার স্বরুপ নগদ টাকা তুলে দেন তাদের হাতে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পরিচালক, কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল, জেলা ক্রীড়া সংস্থার কোষাধক্ষ্য সিরাজ উদ্দিনসহ অন্যান্য ক্রীড়া সংগঠকেরা।

এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/০০