২২ ওভার আগেই শেষ দিনের খেলা

0
49
ছবিঃ বিসিবি।

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ সিলেটে বৈরি আবহাওয়ায় পুরোপুরি শেষ করা যায়নি বাংলাদেশ ও উইন্ডিজের মধ্যকার প্রথম চার দিনের ম্যাচের প্রথম দিনের খেলা। দিনের ৯০ ওভারের মধ্যে খেলা হয়েছে ৬৮ ওভার। ২২ ওভার বাকি থাকলেও ম্যাচ আর মাঠে গড়ানো সম্ভাবনা হয়নি।

সারা দিনে রৌদ্র ঝলমলে ছিল আবহাওয়া। কিন্তু শেষ বিকেলে হুট করেই আকাশ কালো মেঘে ডেকে যায়। প্রচণ্ড বাতাসের দেখা মিলে। এরপরই খেলা বন্ধ করে দেওয়া হয়। বন্ধ হওয়ার সাথে সাথেই ঝড়ো বেগে বৃষ্টির দেখা পাওয়া যায়। কালবৈশাখী ঝড়ে সবকিছু লণ্ডভণ্ড হয়ে যায়।

ঝড়ের আগে বাংলাদেশের বিপক্ষে দাপট দেখিয়েছে ক্যারিবিয়ানরা। ৬৮ ওভারে ২ উইকেট হারিয়ে ২২০ রান সংগ্রহ করে উইন্ডিজ দল। তেজনারায়ণ চন্দরপল ১৯০ বলে ৫ বাউন্ডারির মারে ৭০ রান করে অপরাজিত আছেন। অপরদিকে ৫২ বলে ৬ বাউন্ডারিতে ৩৫ রান করে অপরাজিত থাকেন অ্যালিক স্টিভেন। কাল সকালে আবারও ব্যাট করতে নামবেন এই দুজন।

এর আগে সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে ধীরে-স্থিরভাবেই ব্যাটিং করছিল অতিথিরা। শুরুর দিকে বাংলাদেশের দুই পেসার মুশফিক হাসান ও রিপন মণ্ডল চাপে রাখার চেষ্টা করলেও, উইন্ডিজের দুই ওপেনার ত্যাজনারায়ণ চন্দরপল ও ক্রিক ম্যাকেঞ্জি ঘুরে দাঁড়িয়ে প্রতিরোধ গড়ে তুলেন।

ম্যাচের প্রথম সেশনে মধ্যাহ্ন বিরতির আগ পর্যন্ত উইন্ডিজের সংগ্রহ ছিল ২৬ ওভারে কোনো উইকেট না হারিয়ে ৭৪ রান। দুজনের জুটি রান বাড়িয়েই যাচ্ছিল। বিশেষ করে ভয়ঙ্কর হয়ে উঠছিলেন ক্রিক ম্যাকেঞ্জি। এই বাঁহাতি ওপেনার ফিফটি হাঁকিয়ে সেঞ্চুরির পথে বেশ ভালোভাবেই ছিলেন। তবে শেষ পর্যন্ত সেটি হতে দেননি সাইফ হাসান। ক্রমেই আক্রমণাত্বক হয়ে উঠা ম্যাকেঞ্জিকে ফিরিয়ে অবশেষে ৪০তম ওভারে বাংলাদেশকে প্রথম সাফল্য এনে দেন এই স্পিনার। লং অফে নাঈম হাসানের হাতে ম্যাকেঞ্জিকে ক্যাচ দিতে বাধ্য করেন।

১৩০ রানের উদ্বোধনী জুটি ভেঙে যায় ম্যাকেঞ্জির বিদায়ে। ব্যক্তিগত ৮৬ রানে প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন এই বাঁহাতি। ১২৪ বলের ইনিংসে ১১ বাউন্ডারি ও ১ ছয় হাঁকিয়েছেন ম্যাকেঞ্জি। এরপর উইকেটে আসেন রেইমন রেইফার। উইকেটে এসে শুরু থেকেই আক্রমণাত্বক ছিলেন এই ব্যাটার।

কিন্তু অতি আক্রমণাত্বক হতে গিয়ে ৫২তম ওভারে আউট হয়ে ফিরেন রেইফারও। দলীয় ১৬০ রানের মাথায় মুশফিক হাসানের পেসে কুপোকাত হয়ে উইকেটের পেছনে জাকের আলি অনিককে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন এই বাঁহাতি। ৪২ বলে ৪ বাউন্ডারিতে ২৬ রান করে আউট হন রেইফার।

তবে এরপর আর কোনো উইকেট হারায়নি ক্যারিবিয়ানরা। ১৬ ওভার ব্যাট করে তৃতীয় উইকেটে ৬০ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটিতে বৃষ্টির আসার আগে মাঠ ছাড়েন চন্দরপল ও অ্যালিক স্টিভেন। এরপর আর মাঠে নামার কোনো সম্ভাবনা ছিল না। কেননা বৃষ্টির কারণে খেলা গড়ানোর আরও কোনো সুযোগ ছিল না।

এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/সা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here