রুদ্ধশ্বাস লড়াইয়ে অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে সিরিজ ভারতের

0
36

স্পোর্টস ডেস্কঃ ম্যাচ গড়ালো শেষ ওভারে। জয়ের জন্য ভারতের প্রয়োজন ১১ রান। হাতে আছে ৭ উইকেট। ক্রিজে তখন বিরাট কোহলি ও হার্দিক পান্ডিয়া। ইনিংসের প্রথম বলেই ছক্কা হাঁকিয়ে নিজেদের দিকে ম্যাচ নিয়ে যান কোহলি। তবে দ্বিতীয় বলে তিনি আউট হলেই, জমে উঠে ম্যাচ।

তবে উইকেটে আসা দীনেশ কার্তিক ও হার্দিক পান্ডিয়া কোনো ভুল করেননি। শেষ দুই বলে যখন চার রান প্রয়োজন, ওভারের পঞ্চম বলে বাউন্ডারি হাঁকিয়ে দলের জয় নিশ্চিত করেন হার্দিক। রুদ্ধশ্বাস লড়াইয়ের পর এক বল হাতে রেখেই ৬ উইকেটের বড় জয় এনে দেন ভারতকে। আর এই জয়ে অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে ২-১ ব্যবধানে সিরিজ নিজেদের করে নেয় স্বাগতিকরা।

অস্ট্রেলিয়ার দেওয়া ১৮৭ রানের বড় লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ইনিংসের প্রথম ওভারেই লোকেশ রাহুলকে হারায় ভারত। দলীয় ৩০ রানের মাথায় ফিরে যান অধিনায়ক রোহিত শর্মা। তবে তৃতীয় উইকেটে ৬১ বলে ১০৪ রানের দুর্দান্ত জুটি গড়ে তুলেন কোহলি ও সূর্যকুমার যাদব। এই জুটিই ম্যাচে জয়ের পথ গড়ে দেয়।

৩৬ বলে ৫টি করে ছক্কা ও চারের মারে ৬৯ রানের বিধ্বংসী ইনিংস খেলে সূর্যকুমার ফিরলে, ভাঙে সেই জুটি। পরবর্তীতে হার্দিককে সাথে নিয়ে ৪৮ রানের জুটি গড়ে দলের জয়ের পথ সুগম করেন কোহলি। ইনিংসের শেষ ওভারে আউট হওয়ার আগে ৪৮ বলে ৩ বাউন্ডারি ও ৪ ছক্কায় খেলেন ৬৩ রানের ইনিংস। ১৬ বলে ২৫ রানের ক্যামিও খেলে অপরাজিত থাকেন হার্দিক।

অস্ট্রেলিয়ার হয়ে ৩.৫ ওভারে ৩৩ রান খরচায় ২ উইকেট শিকার করেন ড্যানিয়েল স্যামস। ১টি করে উইকেট লাভ করেন জস হ্যাজলেউড ও প্যাট কামিন্স।

এর আগে হায়দ্রাবাদে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেটের বিনিময়ে ১৮৬ রানের বড় পুঁজি পায় অস্ট্রেলিয়া। ৪৪ রানের ঝড়ো উদ্বোধনি জুটির পরই বিদায় নেন অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ। যদিও তিনি করেন ৬ বলে মাত্র ৭ রান। দুর্দান্ত শুরুর মূল কারিগর ছিলেন ক্যামেরন গ্রিন।

ওপেনিংয়ে নেম তাণ্ডব চালান এই ক্রিকেটার। পঞ্চম ওভারের শেষ বলে দলীয় ৬২ রানের মাথায় আউট হন গ্রিন। তবে এর আগে ২১ বলে ৭ বাউন্ডারি আর ৩ ছক্কায় খেলে যান ৫২ রানের বিধ্বংসী ইনিংস। এরপর স্মিথ-ম্যাক্সওয়েলরা ব্যর্থ হলে, অজিদের রান তোলায় ভাঁটা পড়ে।

তবে জস ইংলিশ, টিম ডেভিড ও ড্যানিয়েল স্যামস সেখান থেকে টেনে তুলেন দলকে। ২২ বলে ৩ বাউন্ডারিতে ২৪ রান করেন ইংলিশ। কিন্তু অজিদের রান বাড়ানোর কারিগর টিম ডেভিড। এই ক্রিকেটার খেলেন ২৭ বলে ২ বাউন্ডারি ও ৪ ছক্কায় ৫৪ রানের ক্যামিও ইনিংস। আর ২৮ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে অপরাজিত থাকেন স্যামস।

ভারতের হয়ে ৪ ওভারে ৩৩ রান খরচায় ৩ উইকেট শিকার করেন অক্ষর প্যাটেল। ১টি করে উইকেট লাভ করেন ভুবনেশ্বর কুমার, যুজবেন্দ্র চাহাল ও হার্শাল প্যাটেল। যশপ্রীত বুমরাহ এদিন ৪ ওভারে ৫০ রান খরচ করেন।

এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/ডেস্ক/সা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here