৪২৯ রানে এগিয়ে রাজশাহী, ব্যর্থ আশরাফুল

0
69

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ জাতীয় ক্রিকেট লিগে চতুর্থ রাউন্ডে বরিশাল বিভাগের বিপক্ষে আগের দিনে দুই ওপেনার জহুরুল ইসলাম অমি ও জুনায়েদ সিদ্দিকীর জোড়া সেঞ্চুরিতে বিনা উইকেটে ২৪২ রান করে দিন পার করে দেয় রাজশাহী বিভাগ। সেই রান নিয়ে দ্বিতীয় দিন আবারও ব্যাট করতে নামে রাজশাহী।

খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে দলটি এদিন ১৪৮.৩ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ৫০৮ রানে নিজেদের প্রথম ইনিংস ঘোষণা করে। সেঞ্চুরি হাঁকানোর পর জহুরুল ফিরেছেন ৩১২ বলে ১৭ বাউন্ডারি ও ১ ছক্কায় ১৭৭ রান করে। আরেক ওপেনার জুনায়েদ সিদ্দিকী আক্ষেপে পুড়েছেন দেড়শ ছুঁতে না পারার। ৩৬৯ বলে ১৫ বাউন্ডারি ও ১ ছক্কায় ১৪৯ রান করেন তিনি। দুজনের ৩৩৩ রানের অনবদ্য উদ্বোধনী জুটি ভাঙেন মোহাম্মদ আশরাফুল। জহুরুলকে বিদায় করে এই প্রথম ব্রেক থ্রু এনে দেন দলকে।

এই ইনিংসে টপ অর্ডারে ব্যাট করতে নামলেও, মুশফিকুর ব্যাট করতে নামলেও বড় রান করতে পারেননি। ৬৯ বলে ২ বাউন্ডারিতে ৩২ রান করে আউট হয়েছেন তিনি। সাব্বির রহমান ৬ বলে ১১ রান করেন। তবে ছয় নম্বরে ইনিংসের তৃতীয় সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন প্রীতম কুমার। ২০ বছর বয়সী এই উইকেটরক্ষক ব্যাটার প্রথম শ্রেণির ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে অপরাজিত থাকেন ১০১ রানে। ৮৯ বলে ৫ বাউন্ডারি ও ৪ ছক্কায় সাজানো ইনিংসে ভর করেই দলীয় স্কোর পাঁচশ পার করে রাজশাহী।

বরিশালের হয়ে আশরাফুল, রুয়েল মিয়া ও তানভীর ইসলাম ২টি করে উইকেট শিকার করেছেন।

রাজশাহীর করা ৫০৮ রানের জবাবে নিজেদের প্রথম ইনিংসে বরিশাল ২১ ওভারে ২ উইকেট হারিয়ে ৭৯ রান তুলতেই দিনের খেলা সমাপ্ত ঘোষণা করা হয়। ইনিংসের শুরুতেই দলীয় ২ রানের মাথায় প্যাভিলিয়নে ফেরেন মোহাম্মদ আশরাফুল। এই ওপেনার ৫ বল খেললেও নামের পাশে কোনো রান যোগ করতে পারেননি। দ্রুতই ফেরেন সদ্য উইকেটে আসা ফজলে রাব্বিও। তিনি ৫ বলে ১ বাউন্ডারিতে ৪ রান করেন।

শুরুতেই দুই উইকেট হারিয়ে বিপাকে পড়া বরিশালের হাল ধরেছেন ওপেনার আবু সায়েম চৌধুরি ও সালমান হোসেইন ইমন। ৭২ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়ে দিন পার করে দেন দুজন। সায়েম ৩০ ও সালমান ৪৪ রানে অপরাজিত আছেন। রাজশাহীর চেয়ে এখনও ৪২৯ রানে পিছিয়ে আছে বরিশাল।

রাজশাহীর হয়ে নাহিদ রানা ও শফিকুল ইসলাম ১টি করে উইকেট লাভ করেন।

এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/সা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here