যে স্টেডিয়ামে হোটেলের বেলকনিতে বসেই দেখা যাবে বিশ্বকাপ ম্যাচ

0
59

নিজস্ব প্রতিবেদক:: আর মাত্র ক’টা দিন। এরপরই পর্দা উঠতে যাচ্ছে ‘দ্য গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ’ খ্যাত বিশ্বকাপ ফুটবলের। কাতারে অনুষ্ঠিত হবে ২০২২ ফুটবল বিশ্বকাপ। ৩২ দলের ফুটবল লড়াই দেখার অপেক্ষায় গোটা বিশ্ব। শুধুমাত্র ফুটবলের লড়াই নয়, এই ক্রীড়া মহাযজজ্ঞের সাথে জড়িয়ে আছে আরও অনেক কিছু। দীর্ঘ প্রচেষ্টায় নিজেদেরকে প্রস্তুত করেছে আয়োজক দেশ কাতার। যেখানে স্টেডিয়াম আছে বড় অংশ জুড়ে। বিশ্বকাপের জন্য সম্পূর্ণ নতুন স্টেডিয়াম গড়ে তুলেছে বিশ্বকাপের আয়োজকরা। সেই স্টেডিয়ামগুলোর বিস্তারিত ধারাবাহিকভাবে তুলা ধরা হবে।  আজকের প্রতিবেদনে থাকছে আল বাইত স্টেডিয়ামের কথা।

কাতার বিশ্বকাপের অন্যতম দৃষ্টিনন্দন ভেন্যু হলো আল বাইত স্টেডিয়াম। কাতারের রাজধানী দোহা থেকে ৩৫ কিলোমিটার উত্তরে আল খোর শহরে অবস্থান এই স্টেডিয়ামটির। এই স্টেডিয়ামটির নকশা করা হয়েছে তাঁবুর আদলে। স্থানীয় মানুষদের অনুপ্রেরণার জন্য এই নকশা। স্টেডিয়ামে দর্শকরা খেলা দেখবেন ছাদযুক্ত এই মাঠে।

তাঁবুর মতো কাঠামোর চারটি স্ট্যান্ড রয়েছে, যার প্রতিটি বাইরের দেয়াল এবং ছাদ পলিটেট্রাফ্লুরোইথিলিন বোনা ফাইবারগ্লাস ঝিল্লি দিয়ে ঢাকা। চারটি স্ট্যান্ডকে একত্রিত করেছে স্টেডিয়ামের উপরে তাঁবুর মতো করে তৈরি করা সেই ছাদ। এই তাঁবু মূলত কাতার এবং উপসাগরীয় অঞ্চলের বেদুঈনদের ব্যবহৃত ঐতিহাসিক তাঁবুগুলোকে প্রতিনিধিত্ব করছে।

স্টেডিয়ামের চারিদিকে সবুজায়নের ব্যবস্থা রয়েছে। আশেপাশে আছে হ্রদ, গ্রিনবেল্ট ভূমি। এছাড়া পার্কও রাখা হয়েছে। তবে মজার বিষয় হলো স্টেডিয়ামের মধ্যেই পাঁচ তারকা হোটেল রয়েছে। সেই হোটেলের রুমের বেলকনি থেকে বসে উপভোগ করা যাবে বিশ্বকাপের ম্যাচ। এছাড়াও থাকছে শপিং সেন্টার, ফুড কোর্ট, জিমসহ অত্যাধুনিক এবং বিলাসবহুল সব সুবিধাই।

২০২১ সালের ফিফা আরব কাপের ম্যাচ দিয়ে এই স্টেডিয়ামের উদ্বোধন হয়েছিল। ৬০ হাজার দর্শক ধারণক্ষমতাসম্পন্ন এই স্টেডিয়াম লুসাইল আইকনিক স্টেডিয়ামের পর এবারের বিশ্বকাপে দ্বিতীয় সেরা ভেন্যু। এর আগে ৩২ হাজার দর্শক ধারণক্ষমতাসম্পন্ন ছিল এই স্টেডিয়াম। এই স্টেডিয়ামে বসে ম্যাচ কাভার করতে পারবেন ১ হাজার সাংবাদিক। স্টেডিয়ামে বিপুল পরিমাণ গাড়ি পার্কিংয়ের সুবব্যস্থা আছে। ৬ হাজার গাড়ি, ৩৫০টি বাস এবং ১৫০টি পাবলিক বাস, একইসাথে ১ হাজার ট্যাক্সি এবং ওয়াটার ট্যাক্সি রাখার ব্যবস্থা আছে।

গ্লোবাল সাসটেইনেবিলিটি অ্যাসেসমেন্ট সিস্টেম এর অধীনে স্টেডিয়ামটি টেকসই নকশা, নির্মাণ ব্যবস্থাপনা এবং এর এনার্জি সেন্টারের দক্ষতার জন্য বেশ কয়েকটি প্রশংসাপত্রও পেয়েছে। স্টেডিয়ামটি একটি ফাইভ-স্টার জিএসএএস রেটিংও পেয়েছে।

কাতার বিশ্বকাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান ও ম্যাচসহ সব মিলিয়ে ৯টি ম্যাচ আয়োজনের দায়িত্বে থাকবে আল বাইত স্টেডিয়াম। ২০ নভেম্বর উদ্বোধনী ম্যাচে মুখোমুখি লড়বে স্বাগতিক কাতার ও ইকুয়েডর। এছাড়াও কাতার আরও একটি ম্যাচ খেলবে এই স্টেডিয়ামে। এর বাইরে জার্মানি ও স্পেনের হাইভোল্টেজও অনুষ্ঠিত হবে এখানে। ইংল্যান্ডের একটি ম্যাচ রয়েছে। রাউন্ড অব সিক্সটিনের একটি, কোয়ার্টার ফাইনাল একটি ও সেমি ফাইনালের একটি ম্যাচের আয়োজনের দায়িত্ব থাকবে আল বাইত স্টেডিয়ামের উপর।

এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/সা/00

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here