কর্তোয়া দেয়ালে হারলেও বেলজিয়ামকে কাঁদিয়ে ছাড়লো কানাডা

0
39

স্পোর্টস ডেস্ক:: ফিফা র্যাংকিংয়ে শীর্ষে তাঁর দল। তাকে স্বস্তিতে, নির্ভার থাকার কথা। যোজন যোজন পিছিয়ে থাকা কানাডার বিপক্ষে তাঁকেই দিতে হলো বড় পরীক্ষা। কানাডিয়ানদের বাঁধার প্রাচীর হয়ে দাঁড়াতে হলো কর্তোয়াকে। ১৯৯৬ বিশ্বকাপের পর প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপের ইতিহাসে পেনাল্টি আটকালেনও তিনি। আর তাতেই যেনো কপাল পুড়লো কানাডার। শেষ পর্যন্ত ১-০ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়তে পেরেছে বেলজিয়াম।

কানার একের পর এক আক্রমণ ঠেকিয়ে বেলজিয়ামের জয়ের নায়ক গোলরক্ষক কর্তোয়াই। ফিফা র্যাংকিংয়ে থাকা শীর্ষ দলকে রীতিমতো কাঁদিয়ে ছেড়েছে কানাডার ফুটবলাররা। যদিও দিন শেষে ভাগ্যের কাছেই হেরেছে দলটি। হার দিয়ে খেসরাত দিতে হয়েছে পেনাল্টি মিসের।

গোলের জন্য ঘাম ঝড়াতে হয়েছে ফিফা র্যাংকিংয়ের শীর্ষ দল বেলজিয়ামকে। কাতার বিশ্বকাপে ‘এফ’ গ্রুপে কানাডা ও বেলজিয়াম মুখোমুখি হয় আহমেদ বিন আলী স্টেডিয়ামে। ম্যাচের শুরুতেই কানাডা পারতো এগিয়ে যেতো পারতো। তবে পেনাল্টি মিসে এগিয়ে যাওয়া হয়নি। ম্যাচের ৯ম মিনিটেই নিজেদের বিপদজনক সীমানায় ফাউল করেন বেলজিয়ামের ডিফেন্ডার। ভিএআরের সহায়তা নিয়ে রেফারি পেনাল্টির সিদ্ধান্ত দেন। আলফোনসো ডেভিসের নেওয়া স্পট কিক ঠেকিয়ে দেন কর্তোয়া। ১৯৯৬ বিশ্বকাপের পর প্রথমবার তিনি পেনাল্টি আটকে দিলেন।

বেলজিয়াম ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিতে মরিয়া হয়ে উঠে। প্রথমার্ধের শেষ দিকে সুযোগও পেয়ে যায় দলটি। ম্যাচের ৪৪তম মিনিটে বাতসুয়াইর গোল করলে বেলজিয়াম এগিয়ে যায় ১-০ গোলে। পিছিয়ে থেকে বিরতিতে যেতে হয় কানাডাকে।

দ্বিতীয়ার্ধে খেলা শুরুর পর আক্রমণও আরাে বাড়িয়ে দেয় কানাডার ফুটবলাররা। তবে প্রথমার্ধের মতো এবারো বেলজিয়ামের রক্ষা কর্তা কর্তোয়া। প্রতিপক্ষের জন্য রীতিমতো বাঁধার প্রাচীর হয়ে উঠেন তিনি। দুর্দান্ত সব সেইভ করেছেন। ফিফা র্যাংকিংয়ের শীর্ষ দলটির জন্য এদিন তিনি রীতিমতো আর্শিবাদ হয়ে উঠেন। পুরোটা সময়ই অসাধারণ দক্ষতায় আগলে রাখেন গোলবার।

শেষ দিকে বেলজিয়াম কয়েকটা আক্রমণ করলেও সুবিধা করতে পারেনি। ব্যবধানও তাই বাড়ানো হয়নি। প্রথমার্ধে পাওয়া ১-০ গোলের ওই জয় নিয়েই তাদেরকে মাঠ ছাড়তে হয়েছে।

এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/ডেস্ক/০০

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here