বিশ্বকাপে রোনালদোর ‘বিশ্ব রেকর্ড’

0
31

স্পোর্টস ডেস্ক:: নিজে গোল করেছিলেন, নিজের ফাউলে আবার সেটি বাতিল হয়ে যায় ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর। তবে তিনি থেমে থাকেননি। বিশ্বকাপের ইতিহাসে একমাত্র ফুটবলার হিসেবে ‘রেকর্ড’ গড়েই মাঠ ছাড়লেন পর্তুগিজ ফুটবল রাজা। তার গোলে লিড নেওয়া পর্তুগাল ঘানার বিপক্ষে জিতেছে ৩-২ ব্যবধানে।

২০২২ বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচেই গোলের দেখা পেলেন রোনালদো। আর তাতেই তিনি গড়লেন ইতিহাস। বিশ্বের একমাত্র ফুটবলার হিসেবে পাঁচ বিশ্বকাপে টানা গোল করলেন তিনি। ২০০৬ বিশ্বকাপ দিয়ে শুরু,, ২০১০, ২০১৪, ২০১৮ এবং সবশেষ চলমান কাতার বিশ্বকাপ ২০২২ এ রোনালদো গোল করলেন।

পাঁচ বিশ্বকাপে পর্তুগিজ এই ফুটবলার রাজার গোলের সংখ্যা এখন ৮টি। সেটি আজ নয়টিতে যেতে পারতো। তবে একটি গোল বাতিল হয়ে যাওয়ায় তা হয়নি। আট গোলের মধ্যে ২০১৮ বিশ্বকাপেই করেছিলেন সর্বাধিক গোল। রাশিয়া বিশ্বকাপে তার পা থেকে আসে ৪টি গোল।

কাতার বিশ্বকাপই তার শেষ বিশ্বকাপ হতে যাচ্ছে। ক্যারিয়ারের পড়ন্ত বেলায় তিনি। আগামি ২০২৬ বিশ্বকাপে অলৌকিক কিছু না ঘটলে রোনালদোকে হয়তো দেখাই যাবে না। শেষ বিশ্বকাপ খেলতে নেমে গোলে রাঙালেন তিনি। ঘানার বিপক্ষে ম্যাচের ৩১তম মিনিটেই পর্তুগাল এগিয়ে যেতে পারতো। রোনালদোও পেয়ে যেতেন এবারের বিশ্বকাপে তার প্রথম গোল। বলও তিনি ঘানার জালে পাঠিয়েছেন। তবে তার আগে ফাউল করায় তার গোলটি বাতিল করে দেন রেফারি। জোয়াও ফেলিক্সের পাস থেকে পাওয়া বল দুই ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে ঘানার জালে পাঠান। তার আগে বল নিজের নিয়ন্ত্রণ নিতে গিয়ে ফাউল করে বসেন তিনি। যার খেসারত হয়েছে গোল বাতিলে।

দ্বিতীয়ার্ধে খেলা শুরুর পরও গোল আসেনি অনেক সময়। এরপরই ‘বিতর্কিত’ এক পেনাল্টি সিদ্ধান্তে এগিয়ে যায় পর্তুগাল। ম্যাচের ৬৩তম মিনিটে রোনালদো বল নিয়ে ঘানার বক্সে ঢুকে পড়েন। প্রতিপক্ষের ডিফেন্ডারের গায়ে লেগে মাটিতে পড়ে যান তিনি। রেফারি পেনাল্টির সিদ্ধান্ত দেন। ঘানার খেলোয়াড়রা প্রতিবাদ করে ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারির সহায়তা নেওয়ার আবেদন করলেও তা প্রত্যাখান করেন রেফারি।

ম্যাচের ৬৫তম মিনিটে পেনাল্টি থেকে রোনালদো গোল করলে পর্তুগাল এগিয়ে যায় ১-০ গোলে। পিছিয়ে পড়া ঘানা মিনিটে আটেক পরেই সমতায় ফিরে। ম্যাচের ৭৩তম মিনিটে আন্দ্রে আইয়ুর গোলে সমতায় ফেরে ঘানা। ম্যাচের স্কোর লাইন হয়ে যায় ১-১ গোলের।

সমতায় থাকা ম্যাচে পর্তুগালকে এগিয়ে দেন ফেলিক্স। ম্যাচের ৭৮তম মিনিটে তার গোলেই রোনালদোরা এগিয়ে যায় ২-১ গোলে। মিনিট দুই পরেই পর্তুগালকে আরো এগিয়ে দেন রাফেল লিও। ৮০তম মিনিটেই ঘানা পিছিয়ে পড়ে ৩-১ গোলে। এরপরই দলটি ব্যবধান কমিয়ে ম্যাচ জমিয়ে তুলে।

পিছিয়ে পড়া ঘানা বুকারির গোলে ম্যাচের অন্তিম সময়ে উত্তেজনা ছড়িয়ে দেয়। ৮৯তম মিনিটে পর্তুগালের জালে বল পাঠিয়ে বুকারি ব্যবধান ৩-২ করেন। শেষের দিকে ঘানা আরেকটি গোল পেলেই কপাল পুড়তো রোনালদোদের।

এসএনপিস্পোর্টসটোয়েন্টিফোরডটকম/নিপ্র/ডেস্ক/০০0

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here